cosmetics-ad

বেশীরভাগ কোরিয়ান কিশোরই কোরিয়া যুদ্ধের ইতিহাস জানে না

অনলাইন প্রতিবেদক, ২৫ জুন ২০১৩:

অর্ধেকেরও বেশী কোরিয়ান কিশোর জানে না ১৯৫০-৫৩ সালের কোরিয়া যুদ্ধ ঠিক কবে শুরু হয়েছিল। ওই যুদ্ধের ৬০ বছর পূর্তি উপলক্ষে চালানো এক জরিপে এমন তথ্যই পাওয়া গেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তা ও জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয় ২৫ মে থেকে ৬ জুন পর্যন্ত ওই জরিপ চালায়। এতে অংশ নেয়া ১০০০ মধ্যবয়সী ও স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী এবং ১০০০ প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির মধ্যে উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক হুমকিধামকির বিষয়টি বাদ দিলে জাতীয় নিরাপত্তা ইস্যুতে খুব আশাব্যঞ্জক সচেতনতা লক্ষ্য করা যায় নি।

৩৫.৮ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক এবং ৫২.৭ শতাংশ কিশোর কোরিয়া যুদ্ধ শুরুর সঠিক তারিখটি বলতে পারে নি। এদের মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক নারীর সংখ্যা ৪৪.৬ শতাংশ এবং কিশোরী মেয়ের সংখ্যা ৬২.৫ শতাংশ।

kr

জরিপে অংশ নেয়া ৬৪.৯ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক এবং ৪১.৯ শতাংশ কিশোর দাবী করেছে তাঁরা জাতীয় নিরাপত্তার প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে খুবই সচেতন।

৫২.২ শতাংশ কিশোর বলেছে, উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক পারমাণবিক পরীক্ষা, আক্রমণাত্মক বক্তব্য ও কেসং শিল্প এলাকায় অনির্দিষ্টকালের অচলাবস্থার পরও বর্তমান জাতীয় নিরাপত্তা নীতিতে তাঁদের আস্থা রয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার প্রতি দক্ষিণের অধিবাসীদের মনোভাবে স্পষ্ট বিভক্তি লক্ষ্য করা গেছে। ৪৩ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক মনে করে উত্তর কোরিয়ার সাথে একযোগে কাজ করা উচিত যা ২০১০ সালের তুলনায় ৯.৩ শতাংশ বেশী। অন্যদিকে ৫২.৪ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক এখনও উত্তর কোরিয়াকে শত্রু হিসেবেই দেখে। তবে এ হার বছর তিনেক আগের তুলনায় ৭.৫ শতাংশ কম।

অন্যদিকে, কিশোরদের ৪৪.১ শতাংশ উত্তরের সাথে ইতিবাচক সম্পর্কোন্নয়ন চায়। তবে ৪১.৩ শতাংশ কিশোর উত্তর কোরিয়াকে দক্ষিনের জন্য বড় হুমকি হিসেবে দেখে। প্রাপ্তবয়স্কদের মাঝে এমন মনোভাব ২৪ শতাংশের।