sentbe-top

ফ্রান্সে আতঙ্কে হিজাব ছেড়ে টুপি!

hijabপ্যারিস হামলার পর থেকে বেড়ে চলেছে মুসলিমবিদ্বেষ। আর সেই আতঙ্কের শিকার হয়ে নিজের পরিচয় গোপন করতে হিজাব ছেড়ে টুপি পরা শুরু করেছেন ১৮ বছরের কিশোরী সেলসাবিল বেলোউদ।

ওই কিশোরীর ভাষায়, সে আতঙ্কিত ও দুর্বল হয়ে পড়ছে ক্রমশ। সে জানে যে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য এসব করার হয়ত দরকার নেই। কারণ কোনো মানুষকে তার নিজের ধর্মীয় পরিচয় নিয়ে আতঙ্কিত হওয়া উচিৎ নয়। কিন্তু আতঙ্কে থেকে টুপি পরা শুরু করেছেন। ফ্রান্সজুড়ে ঘটনার দায়ভার মুসলিমদের উপর চাপিয়ে দিচ্ছেন মানুষজন। আর তাই এই পন্থা নিয়েছে বলে দাবি ওই কিশোরীর।

অনেক রাতে গাড়িতে যাতায়াত করে ওই কিশোরী। মনে ভয় থাকে যদি কিছু হয়ে যায়! কোথাও ইন্টারভিউ দিতে গেলে খুলে রাখে হিজাব। ওই কিশোরীর কথায়, আমাদের দুর্ভাগ্য যে আমরা ওই জঙ্গিদের ধর্মেরই মানুষ। আমার আর আলাদা করে বলার দরকার নেই যে আমরা সন্ত্রাসবাদী নয়। কারণ এই কথাটা বিশ্বজুড়ে বারবার বলা হচ্ছে। তবু মানুষ বুঝতে পারছে না।

সেলসাবিলের বাবা-মা আলজেরিয়া থেকে এসেছেন। তার পরিবার প্যারিসের প্রত্যন্ত এলাকায় বাস করেন। মিডিয়াতে কাজ করতে চায় সেলসাবিল। তার ধারণা মাথায় হিজাব দেখলে ফ্রান্সে কোথাও চাকরি হবে না তার। তাই সে ফ্রান্স ছেড়ে ব্রিটেন চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী বছরেই সেখানে চলে যাবে সে। এই কিশোরীর মত আরও অনেকেও ফ্রান্স ছেড়ে চলে যাচ্ছেন ধর্মীয় বিদ্বেষের শিকার হয়ে। এই কিশোরীর স্বপ্নের শহর প্যারিস। প্যারিসের রাস্তায় হেঁটে বেড়ানোর তার কাছে ভীষণ আনন্দের। কিন্তু আপাতত ফ্রান্স ছাড়ার জন্য ওয়েট্রেস-এর কাজ করতে হচ্ছে তাকে। তার স্বপ্ন একদিন তার দেশ ফ্রান্স ধর্মীয় বিদ্বেষের ঊর্ধ্বে উঠবে।

sentbe-top