cosmetics-ad

দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উ. কোরিয়া

missile

উত্তর কোরিয়া দূরপাল্লার একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। সমালোচকদের ভাষায় এ পরীক্ষা, নিষিদ্ধ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা। কক্ষপথে একটি উপগ্রহ পাঠানোর বিষয়ে জাতিসংঘকে আগেই জানিয়েছিল উত্তর কোরিয়া।

ধারণা করা হচ্ছে, ক্ষেপণাস্ত্রটি উত্তর কোরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের কোনো ঘাঁটি থেকে উৎক্ষেপণ করা হতে পারে এবং তা জাপানের ওকিনওয়া দ্বীপপুঞ্জের উপর দিয়ে গেছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হামলায় সক্ষম, উত্তর কোরিয়া এমন পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করছে- এই আশঙ্কার মধ্যেই এমন পরীক্ষাটি চালালো দেশটি। জাপান এবং যুক্তরাষ্ট্র এর নিন্দা জানিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার এ পদক্ষেপের পর যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং দক্ষিণ কোরিয়া এখন জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি সভা চায়। দক্ষিণ কোরিয়ার বিশ্লেষকরা মনে করছেন, ১৬ ফেব্রুয়ারি দেশটির প্রয়াত স্বৈরশাষক দ্বিতীয় কিম জং-এর জন্মদিনকে সামনে রেখে এ পরীক্ষা চালানো হতে পারে।

উত্তর কোরিয়া নিজেদের কর্মকাণ্ড বিজ্ঞানের জন্য বলে দাবি করে এলেও যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া, এমনকি চীনের কাছে তা পুরোপুরি বিশ্বাসযোগ্য নয়। তাদের মতে, যুক্তরাষ্ট্রে হামলায় সক্ষম এমন প্রযুক্তি আয়ত্ব করায় এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মূল উদ্দেশ্য।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রের উৎক্ষেপনের এ বিষয়টিকে সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্যে উল্লেখ করে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে বলেছেন, তা জাতিসংঘের নিরপত্তা পরিষদের নীতির পরিষ্কার লঙ্ঘন। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের নীতিতে উত্তর কোরিয়ার কোনো পারমাণবিক বা ব্যালিস্টিক মিসাইল পরীক্ষার অনুমতি নেই।

আর পুরো বিষয়টিকে উসকানিমূলক বলে মনে করছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুজান রাইস। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান মনোয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার বিষয়ে চীনের পদক্ষেপ চেয়েছেন।