sentbe-top

গরমের কারণে একেরপর এক বাতিল হচ্ছে ফ্লাইট

phoenix-airportযুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা রাজ্যের রাজধানী ফিনিক্সে এখন গ্রীষ্মকাল চলছে। গরম সেখানে সব সময়ই একটু বেশি। এবার যেন একটু মাত্রা ছাড়িয়েছে। গরম এতটাই পড়েছে যে সেখানে একেরপর এক ফ্লাইট বাতিল হচ্ছে।

দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, গত সোমবার ফিনিক্সে তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১১৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। চলতি শতকে এটি সেখানে গরমের রেকর্ড।

গরমের তীব্রতায় স্থানীয় আবহাওয়াবিদেরা এখন টুইট করছেন ‘#মেকইটস্টপ’ শিরোনামে। বদলে গেছে স্থানীয় অধিবাসীদের জীবনাচরণও। বেশির ভাগ মানুষই এখন বিকেল বেলায় কাজ শুরু করছেন। আর তাড়া আছে সকাল বেলা সূর্য ওঠার আগেই তা শেষ করার।

গরমের কারণে চলতি সপ্তাহে কমপক্ষে ৫০টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। আমেরিকান এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে বুঝে-শুনে টিকিট কিনতে। কারণ যেকোনো সময়ই বাতিল হতে পারে ফ্লাইট। আবার বিনা ফিতে ফ্লাইট পরিবর্তনের প্রস্তাবও দেওয়া হচ্ছে।

আমেরিকান এয়ারলাইনসের মুখপাত্র রস ফিনস্টেইন বলেন, “বোম্বারডিয়ার সিআরজে মডেলের বিমান ব্যবহার করায় তাঁদের সমস্যা হচ্ছে বেশি। কারণ, এসব বিমান ১১৮ ডিগ্রি ফারেনহাইটের কম তাপমাত্রায় উড়তে পারে। এয়ারবাস বা বোয়িংয়ের মতো বড় বিমানগুলো অবশ্য ১২৭ ডিগ্রি তাপমাত্রাতেও উড়তে পারে। কিন্তু এর চেয়ে ছোট আকারের বিমানগুলো তা পারে না। কারণ, প্রত্যেক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নিজেদের বিমানের ক্ষেত্রে তাপমাত্রা সহ্য করার ক্ষমতা নির্দিষ্ট করে দেয়।”

অবশ্য ফিনিক্সে তাপমাত্রা কমার কোনো লক্ষণ এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, চলতি সপ্তাহের বাকি সময়টুকুও চলবে এই দাবদাহ।

sentbe-top