cosmetics-ad

প্যান্ট ছাড়াই লাইভে বাবা, ছবি ছাড়ল ছেলে

live-with-no-pants

বহু আলোচিত পিকে সিনেমার কথা সবারই নিশ্চয় মনে আছে, সেখানে রোমান ইরানি টেলিভিশনের একটি টকশো করার সময় মাঝে আনুশকা শর্মার সাথে কথা বলার সময় দেখা গেছে শরীরের অর্ধেক ফরমাল মানে (সুট-টাই) পরা আর নিচের অংশে ছিল হাফ প্যান্ট । কারণ লাইভ ভিডিওতে যেহেতু শরীরের উর্ধ্বাংশ দেখা যায় এজন্য শার্ট, টাই, ব্লেজার পরলেও নিম্নাঙ্গে তার হাফপ্যান্ট ছিল।

সম্প্রতি, আল জাজিরার সাথে স্কাইপে লাইভ মন্তব্য করছিলেন জর্ডানের রাজনৈতিক বিশ্লেষক মাজিদ আসফূর। লাইভ ভিডিওতে যেহেতু শরীরের উর্ধ্বাংশ দেখা যায় এজন্য শার্ট, টাই, ব্লেজার পরলেও নিম্নাঙ্গে তার প্যান্ট ছিল না। ছিল শুধু একখণ্ড কৌপীন! এতে অবশ্য টিভি শোর তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি।

কিন্তু দুষ্টের শিরোমনি তার ছেলে তার প্যান্টছাড়া মুহূর্তকে মোবাইলে ভিডিও করে ফেলেন। বাবাকে নিয়ে শুধু মজা করার জন্য অনলাইনে শেয়ার করা হলেও এটা তার চেয়ে বেশি কিছু হয়ে উঠে। অনলাইনে ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। ১২ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায় বেশ স্বাভাবিকভাবেই ফর্মাল ব্লেজার, শার্ট ও টাই পরে ল্যাপটপের সামনে কথা বলছেন মাজিদ আসফূর।

আল জাজিরাতে সরাসরি দেখানো সে ভিডিওতে আসলে তেমন আপত্তিকর কিছু ছিলনা। কিন্তু দুষ্ট ছেলে বাবার বিহাইন্ড দ্য সিন অংশটি দেখাতে গিয়ে হইচই ফেলে দিল!

আল রাই এরাবিক এর সাবেক এই প্রধান সম্পাদকের আসলে প্যান্ট ছিলো না। দুটি কুশনের উপর ল্যাপটপ রেখে দিব্বি কথা বলছিলেন মাজিদ আসফূর। ছেলে মানাফ ভিডিওটি করে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করেছিল।

টুইটারে বেশ কয়েকবার শেয়ার হওয়ার পর ভাইরাল হতে থাকে। নিজের এই ফানি ভিডিওর কথা নিয়ে বলতে গিয়ে জর্ডান টাইমসকে মাজিদ আসফূর বলেন, ‘আম্মানের তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রির উপরে। যেহেতু বাড়িতেই ছিলাম এজন্য ওভাবে লাইভ যেতে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।’

নিজের বর্তমান খ্যাতি নিয়ে মজা করে বলেন, দীর্ঘদিন রাজনৈতিক ভাষ্যকার হিসেবে কাজ করে গেলেও ‘প্রথমবারের মতো এত বেশি পাবলিসিটি পেয়েছেন’।

এ কারণে অবশ্য নিজের প্যান্ট না পরার সিদ্ধান্তকে এবং ছেলের দুষ্ট বুদ্ধিকে স্যালুট দিতেই পারেন!