sentbe-top

মার্কিন হামলা রুখতে উত্তর কোরিয়ার ৩৫ লাখ মানুষের সেনাবাহিনীতে যোগদান

north-korea
পিয়ংইয়ংয়েরে কিম ইল-সুং চত্বরে লাখ লাখ মানুষের বিক্ষোভ সমাবেশ

সম্ভাব্য মার্কিন হামলা মোকাবেলা করতে অন্তত ৩৫ লাখ মানুষ দেশটির সেনাবাহিনীতে নাম লিখিয়েছে। উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীনদের মুখপত্র রোডং সিনমুন এই খবর দিয়েছে। একে মার্কিন হামলা রুখতে উত্তর কোরীয় জনতার জাগরণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। গত বুধবার উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের কিম ইল-সুং চত্বরে লাখ লাখ মানুষ সমাবেশ করে বিক্ষোভ দেখিয়েছে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি।

ওই বিক্ষোভের খবর প্রকাশ করে তিনি জানান বিক্ষোভ থেকে দেশের ৩৫ লাখ মানুষ স্বেচ্ছায় সেনাবাহিনীর খাতায় নাম লিখিয়েছেন। ফরাসী বার্তা সংস্থা এএফপি ওই বিক্ষোভ সমাবেশের ছবি প্রকাশ করেছে। ওই বিক্ষোভ সমাবেশের বরাত দিয়ে লন্ডন ভিত্তিক ইংরেজী দৈনিক সানডে এক্সপ্রেস তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দেশটির সেনাবাহিনীর সাথে ৩ দশমিক ৫ মিলিয়ন মানুষ ‘ভলান্টিয়ার’ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে লড়েবে।

গতমাসে পরপর দুটি সফল ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর পর যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরপরই ওই বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয় বলে জানা গেছে।

people-joined-n.korean-army

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন দলের মুখপাত্র রোডং সিনমুনে বলেন, ‘আমেরিকার বিরুদ্ধে হাজার হাজারবার প্রতিশোধ নেয়ার জন্য উত্তর কোরিয়ার সব মানুষ জেগে উঠছে। পিয়ংইয়ংয়ের উপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা জারি করার পরপরই উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনীতে ৩৫ লাখ মানুষ নাম লিখিয়েছে।

তবে দেশটির সেনাবাহিনীতে স্বেচ্ছায় নাম লেখানে ৩৫ লাখ মানুষের মধ্যে অধিকাংশই দেশটির সাবেক সেনাসদস্য এবং বিভিন্ন বয়সের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। বলা হয়ে থাকে উত্তর কোরিয়ার প্রতিটি নাগরিকই সামরিক বা গেরিলা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। ফলে যুদ্ধের সময় তাদের সব নাগরিকই অংশ নিতে পারবে বলে বিভিন্ন সূত্র নানা সময়ে দাবি করে আসছে।

sentbe-top