cosmetics-ad

অক্সফোর্ড থেকে এবার মুছে ফেলা হচ্ছে সুচির নাম

suchi

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে অব্যাহত গণহত্যার দায়ে প্রতিকৃতি ও পুরস্কার বাতিলের পর এবার অং সান সুচির নাম মুছে ফেলা হচ্ছে অক্সফোর্ডের জুনিয়র কমন রুম থেকে। বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ইউনিভার্সিটির সেন্ট হিউ’স কলেজের শিক্ষার্থীরা কমন রুম থেকে সুচির নাম মুছে ফেলার পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

অক্সফোর্ডের এই আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কলেজেরই শিক্ষার্থী ছিলেন সুচি। তিনি ১৯৬৭ সালে এখান থেকেই স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ওই কলেজ ২০১২ সালে তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দেয়। এর আগে ১৯৯১ সালে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান।

ইতোপূর্বে রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে টেস্ট কাউন্সেলর সু চিকে সম্মান প্রদর্শক পুরস্কার ‘ফ্রিডম অব অক্সফোর্ড’ প্রত্যাহার করা হয়। মিয়ানমারে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় দীর্ঘ সংগ্রামের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৯৭ সালে তাকে এই সম্মাননা দিয়েছিল যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড সিটি কাউন্সিল। তবে এখন আর তার জন্য এটি ‘উপযুক্ত নয়’ বলে কর্তৃপক্ষ মনে করে।

যুক্তরাজ্যের এই বিশ্ববিদ্যালয়টির সেন্ট হিউজ কলেজে তার প্রতিকৃতিমূলক ছবি ছিল; সেটি সবার আগে প্রতিবাদস্বরূপ সরিয়ে ফেলা হয়।

রাখাইন রাজ্যে গত ২৪ আগস্টের পর থেকে অব্যাহত গণহত্যা, গণধর্ষণের শিকার হয়ে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা ছয় লাখের কাছাকাছি বলে জাতিসংঘ জানাচ্ছে। তবে বেসরকারি হিসেবে এই সংখ্যা আরও লাখ খানেক বেশি। এছাড়া আগে থেকেই চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে থাকেন। সর্বমোট ১০ লাখ ছাড়িয়েছে।