sentbe-top

অস্ট্রেলিয়ান নাগরিককে তুলে নিয়ে ইয়াবা দিয়ে চালান

nadim
অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক নাদিম উল্লাহ। ছবি : সংগৃহীত

চুয়াডাঙ্গায় বাবার কবর জিয়ারত করে ফেরার পথে এক অস্ট্রেলিয়ান নাগরিককে তুলে নিয়ে ইয়াবা দিয়ে চালান দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) বিরুদ্ধে।

পরিবারের দাবি, গাজীপুরের ডিবি পুলিশ চুয়াডাঙ্গা থেকে অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক প্রকৌশলী সৈয়দ মো. নাদিম উল্লাহকে অপহরণ করে। পরে মুক্তিপণ বাবদ দুই লাখ টাকা দাবি করে। সেই টাকা না দেওয়ায় ইয়াবা দিয়ে তাঁকে গাজীপুরের আদালতে চালান দেওয়া হয়।

প্রকৌশলী নাদিম উল্লাহ চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার কালিদাসপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন। সেখানকার নাগরিকত্ব পেয়েছেন তিনি।

নাদিম উল্লাহর পরিবারের ভাষ্যমতে, গত ২৫ অক্টোবর বেলা ১১টার দিকে বাবার কবর জিয়ারত শেষে বাড়ি থেকে ভ্যানে করে আলমডাঙ্গা শহরে যাচ্ছিলেন। পথে আলমডাঙ্গা শহর সংলগ্ন কুমার নদের সেতুর ওপর থেকে সাদা পোশাকে ডিবি পুলিশের একটি দল মাইক্রোবাসে করে তাঁকে তুলে নিয়ে যায়। তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘণ্টা দুয়েক পর খোরশেদ নামের এক ব্যক্তি নিজেকে গাজীপুর ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) পরিচয় দিয়ে নাদিমের মা সৈয়দা নাহিদ সুলতানার কাছে ফোন করেন। নাদিমকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য তিনি দুই লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা না দেওয়ায় নাদিমকে ইয়াবা দিয়ে চালান দেয় ডিবি।

সৈয়দা নাহিদ সুলতানা অভিযোগ করে বলেন, তাঁর ছেলেকে হেনস্থা করতে গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানায় মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে। তিনি অবিলম্বে নাহিদের মুক্তিসহ এ ঘটনায় জড়িত ডিবি পুলিশ সদস্যদের শাস্তি দাবি করেছেন।

নাদিমের ফুফাতো বোন নূরজাহান জানান, নাদিম ১৮ বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করে আসছেন। তিনি সেখানকার নাগরিক। তাঁর স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েও অস্ট্রেলিয়ায় থাকেন। নাদিমের বাবা বরকত উল্লাহ ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ায় এক বছর ধরে তিনি দেশে অবস্থান করছেন। গত ১৭ আগস্ট তাঁর বাবা মারা যান।

নাদিম উল্লাহকে বহনকারী ভ্যানচালক নাজমুল হোসেন বলেন, তিনি নাদিম উল্লাহসহ তাঁর পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে কালিদাসপুর ইউনিয়নে যান। সেখানে নাদিম তাঁর বাবার কবর জিয়ারত শেষে মা ও ভাইকে বাড়িতে রেখে ওই ভ্যানে করেই আলমডাঙ্গা রেজিস্ট্রি অফিসে যাচ্ছিলেন। পথে আলমডাঙ্গা শহর সংলগ্ন কুমার নদের সেতুর ওপর থেকে কিছু লোক দুটি সাদা মাইক্রোবাসে করে নাদিম উল্লাহকে তুলে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেন বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বাইরের কোনো জেলা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো দল অন্য জেলায় গেলে স্থানীয় থানায় জানাতে হবে। কাজ শেষে পুনরায় জানিয়ে তারপর যাবে।

ওসি আরো বলেন, গাজীপুর ডিবির একটি টিম আলমডাঙ্গায় আসার আগে ফোন করেছিল। কিন্তু এসে কী করে, তা বলেনি। তবে নাদিমকে তুলে নিয়ে যাওয়ার খবর তিনি শুনেছেন।

তবে এ ব্যাপারে গাজীপুর ডিবি পুলিশের ওসি আমির হোসেন বলেন, নাদিমকে দুই হাজার ইয়াবা বড়িসহ গাজীপুরের চন্দ্রা এলাকা থেকে আটক করা হয়। পরে তাঁকে চালান দেওয়া হয়েছে। নাদিমকে আলমডাঙ্গা তুলে নিয়ে যাওয়া এবং পরে টাকা দাবির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ওসি আকরাম হোসেন।

সূত্র: এনটিভিবিডি

sentbe-top