যুক্তরাষ্ট্রকে কিমের ‘গোপন বার্তা’

koriaসদ্য পিয়ংইয়ং সফর করা দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিনিধি দলের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রকে একটি ‘গোপন বার্তা’ দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। দক্ষিণ কোরিয়ার দূতরা এ সপ্তাহান্তেই ওয়াশিংটন সফরের সময় সে বার্তা যুক্তরাষ্ট্রকে পৌঁছে দেবেন বলে জানানো হয়েছে কয়েকটি খবরে। তবে তারা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করবেন কিনা তা পরিষ্কার জানা যায়নি।

পরমাণু প্রকল্প নিয়ে উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্র আলোচনার পথ সুগম করতে গত সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার বিশেষ দূতদের ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল পিয়ংইয়ংয়ে যায়। তাদের সঙ্গে বৈঠককালেই উত্তর কোরিয়া নেতা কিম ব্যক্তিগত ওই বার্তা দেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

দুই দিনের সফর শেষে দক্ষিণ কোরিয়া ফেরার পর মঙ্গলবার প্রতিনিধি দলটি এক সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে জানায়, কিম জং-উন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন এমনকি ওই সময়টিতে তিনি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাও বন্ধ রাখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

প্রতিনিধি দলের প্রধান চুং ইউই-ইয়ং বলেছেন, “আমরা সবকিছু গণমাধ্যমকে বলতে পারি না। তবে উত্তর কোরিয়া নিয়ে আমাদের আরো কিছু অভিমত আছে। আর সেটিই যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় তাদেরকে জানাব আমরা।”

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিমের সঙ্গে প্রথমবারের মত বৈঠকের পর দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা কোনো কিছুই খুব স্পষ্ট করে বলছেন না, এমনকি কূটনৈতিক ভাষা ব্যবহারেও তারা যথেষ্ট সতর্ক রয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে তারা কিমের বার্তার গুরুত্ব বাড়াতে চাইছেন কিনা তা বোঝা যাচ্ছে না। আর বার্তাটি কার উদ্দেশে দেওয়া হয়েছে সেটিও পরিষ্কার নয়।

সৌজন্যে- বিডিনিউজ