কানাডায় বিরল প্রতিবাদ : বেতন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি শত শত চিকিৎসকের

canada-doctorএমন বিরল প্রতিবাদ শুধুমাত্র কানাডীয়রাই করতে পারেন বললে অত্যুক্তি হবে না। দেশটির শত শত চিকিৎসক তাদের বেতন বৃদ্ধির প্রতিবাদে কুইবেক শহরের রাস্তায় নেমেছে। এই চিকিৎসকরা বলছেন, তারা ইতোমধ্যে অনেক অর্থ-কড়ি করেছেন; বেতন বাড়ানোর প্রয়োজন নেই।

বেতন বৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বুধবার বিকালে কুইবেক প্রদেশের প্রায় ৭০০ চিকিৎসক, স্থানীয় বাসিন্দা ও মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীরা একটি অনলাইন পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন।

জনস্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করে কুইবেকের মেডিসিন কুইবেক পোর লি রিজাইম (এমকিউআরপি) নামে চিকিৎসকদের একটি গ্রুপ। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি এই গ্রুপটি বেতন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের আহ্বান জানিয়ে অনলাইন পিটিশনে স্বাক্ষর কর্মসূচি শুরু করে।

পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘আমরা কুইবেকের চিকিৎসক, সরকারি ব্যবস্থাপনার প্রতি যাদের দৃঢ় বিশ্বাস রয়েছে। মেডিক্যাল ফেডারেশনের সঙ্গে সম্প্রতি আলোচনার পর বেতন বাড়ানোর যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে আমরা তার বিরোধিতা করছি।’

চিকিৎসকদের এই গ্রুপটি বলছে, ‘এই বেতন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত মেনে নেয়াটা আমাদের ভালো বিবেকবান কাজ হতে পারে না; যখন নার্স, কেরানিসহ অন্যান্য পেশার লোকজন কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে কাজ করছেন। এছাড়া সাম্প্রতিক বছরগুলোতে স্বাস্থ্যখাতে কাট-ছাট করার কারণে রোগীদের জন্যও প্রয়োজনীয় সেবা-সামগ্রীর অভাব রয়েছে।’

সম্প্রতি কুইবেকে নার্সদের একটি ইউনিয়ন নার্স সঙ্কট মোকাবেলা করতে সরকারের কাছে আইন পাসের দাবি জানিয়েছে। তারা বলছে, সরকারকে নির্ধারণ করে দিতে হবে কতজন রোগীকে সেবা দিতে পারবেন একজন নার্স।

নার্সদের এ ইউনিয়ন বলছে, কর্মঘণ্টার চেয়ে দীর্ঘসময় ধরে অতিরিক্ত সেবা দিতে হচ্ছে নার্সদের। কাজের পরিবেশ আরো উন্নত করার দাবিতে বেশ কয়েকবার তারা প্রতিবাদেও নামে। সময়

গত জানুয়ারি কুইবেকের নার্স এমিলি রিচার্ডের একটি পোস্ট ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। নিজের অশ্রুসিক্ত চোখের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন তিনি। ছবির ক্যাপশনে লিখেন, রাতের ডিউটি করে তিনি পরিশ্রান্ত।

রিচার্ড আরো বলেন, হাসপাতালে তার ফ্লোরে তিনিই একমাত্র নার্স হিসেবে ৭০ জন রোগীকে রাতে সেবা দিয়েছেন। তিনি খুবই ক্লান্ত ছিলেন। রাতে এক মুহূর্তের জন্য ঘুমাতে পারেননি তিনি।

কুইবেকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী গায়েতান বারেট্টির সমালোচনা করে রিচার্ড ফেসবুক পোস্টে বলেন, ‘এটা নার্সিংয়ের চিত্র। সম্প্রতি কানাডার এই মন্ত্রী স্বাস্থ্যখাতে পরিবর্তনকে বড় ধরনের সফলতা বলে দাবি করেন।

সূত্র : দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট।