sentbe-top

বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশ গ্রহণের অপেক্ষায় স্বজনরা

biman-crashবিমান দুর্ঘটনায় নিহত ২৬ বাংলাদেশির লাশ বর্তমানে নেপালের হিমঘরে রাখা আছে বলে জানিয়েছেন নেপালে অবস্থানরত বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল। তিনি জানান, নিহত ব্যক্তিদের ময়নাতদন্ত শেষ করতে অন্তত তিন দিন সময় লাগবে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় লাশ ঢাকায় নেওয়া হবে। এছাড়া যাদের পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব হবে না, তাদের পরিচয় শনাক্ত করতে ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে। বুধবার নেপালের একটি হোটেলে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা জানান।

মন্ত্রি বলেন, কেউ যদি তাদের আহত আত্মীয়-স্বজনকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে চান, নিতে পারবেন। তবে চিকিৎসার খরচ নিজেদের বহন করতে হবে।

waiting-for-dead-bodyএ দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশের জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন স্বজনরা। নিহতদের স্বজনদের নেপালে নেওয়া হয়েছে লাশ চিহ্নিত করার জন্য। কিন্তু লাশ কবে আনা হবে তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি বিমানমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল। বিষয়টি স্বজনদের মধ্যে ক্ষোভেরও জন্ম দিয়েছে। নিহতদের মধ্যে আটজনের লাশ শনাক্ত করা সম্ভব হলেও অন্যদের চেহারা আগুনে পুড়ে বিকৃত হয়ে গেছে। ফলে সেগুলো চেনা যাচ্ছে না।

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার একটি বিমান গত সোমবার বিধ্বস্ত হয়। এতে চারজন ক্রু ও ৬৭ জন যাত্রীর মধ্যে ৫১ জন নিহত হয়েছেন। বাংলাদেশি মারা গেছেন ২৬ জন। বিমানটিতে ৩৬ জন বাংলাদেশি ছিলেন।

sentbe-top