sentbe-top

বাহরাইনে ৮৬ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় তেলের খনি আবিষ্কার

bahrainবাহরাইনের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় তেল ও গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কারের ঘোষণা দিয়েছে। গত মঙ্গলবার বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ৮৬ বছরের ইতিহাসে এটি সবচেয়ে বড় তেলের খনি। ১৯৩২ সালের পর দেশটি এবার এতো বড় তেল ক্ষেত্রের সন্ধান পেলো।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, বাহরাইনের পশ্চিম উপকূলে খালিজ আল-বাহরাইনে এ গ্যাস ও তেল খনিটি আবিষ্কৃত হয়েছে। এই খনি থেকে প্রতিদিন ৫০ হাজার ব্যারেল তেল উত্তোলন করা সম্ভব। আর এতে প্রাকৃতিক গ্যাস রয়েছে এক বিলিয়ন কিউবিক ফিট গ্যাস। তবে দেশটি তাদের উপসাগরীয় প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোর মতো জ্বালানি সম্পদে ততোটা সমৃদ্ধ নয়। সূত্র বিবিসি।

বাহরাইনের ক্রাউন প্রিন্স সালমান বিন হামাদ দেশটির তেল ও খনিজ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা শেষে জানিয়েছেন, নতুন আবিষ্কৃত খনিটিতে প্রচুর পরিমাণে হালকা ক্রুড অয়েল এবং প্রাকৃতিক গ্যাস রয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই খনিতে দেশটির বর্তমান রিজার্ভের চাইতেও বেশি প্রাকৃতিক সম্পদ রয়েছে।

প্রিন্স সালমান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে জানান, স্থানীয় সময় বুধবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে খনির বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। খনিতে থাকা প্রাকৃতিক সম্পদের মজুদ ও উত্তোলনের সম্ভাব্য পরিমাণ ইতোমধ্যে প্রাথমিকভাবে জানানো হয়েছে।

বাহরাইনের জাতীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, আগামী ৫ বছরের মধ্যে তেল উত্তোলন শুরু হতে পারে। তবে ঠিক কত পরিমাণ তেল উত্তোলিত করা যাকে তা নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছেন দেশটির তেলমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন খালিফা আল খালিফা। তবে বিশ্ব বাজারে বাহরাইনকে অন্যতম অবস্থানে নিয়ে যেতে পারে এই তেল ক্ষেত্র বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বিশ্বের সবচেয়ে বৃহত্তম তেলের খনিটি সৌদি আরবের। ঘাওয়ার নামের এই তেলের খনি থেকে তেল উত্তোলন শুরু হয় ১৯৫০ সালে। এটি তেল উত্তোলনকারী অন্য সাতটি দেশের চাইতেও বেশি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন। এই খনি থেকে এখনো প্রতিদিন ৫ বিলিয়ন ব্যারেল তেল উত্তোলন করা হয়।

sentbe-top