দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের শাস্তিতে খুশি উত্তর কোরিয়া

park

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট পার্ক গুন হে’র শাস্তিতে সন্তোষ প্রকাশ করেছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সরকারের অবস্থান তুলে ধরে বলেছে, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পার্ক হলো একটা বিশ্বাসঘাতক। তিনি দেশটিতে মহাদুর্নীতির জন্য দায়ী।

পার্ক গুন হে প্রেসিডেন্ট থাকাকালে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছিলেন। তিনি উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সমঝোতার সম্ভাবনা প্রায় ধ্বংস করে দিয়েছিলেন বলে অনেকেই মনে করেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্ক পার্ক গুন হে ২০১৫ সালে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন-কে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন বলে পিয়ংইয়ং এর আগে দাবি করেছে। ওই অভিযোগে দেশটি পার্কের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডাদেশও জারি করে রেখেছে।

গতকাল শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট  পার্ক গুন হে’র ২৪ বছরের জেল হয়েছে।

টানা ১০ মাসেরও বেশি সময় ধরে শুনানি শেষে সাবেক প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ১৮টি ফৌজদারি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে।

তবে ৬৬ বছর বয়সী পার্ক তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। প্রায় একবছর ধরে সিউলের কাছে একটি ডিটেনশন সেন্টারে তাকে রাখা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্ক জং হি’র মেয়ে পার্ক পার্ক গুন হে’র ২০১৩ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৭ সালের ১০ মার্চ তাকে অভিসংশন করা হয়।