sentbe-top

কিম মুনের যৌথ ঘোষণার ৮ টি মূল পয়েন্ট

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন এবং উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের ঐতিহাসিক সম্মেলনকে ঘিরে চলছে আলোচনা। সম্মেলন শেষে দুই নেতার শান্তির বার্তার সুবাতাস বয়েছে সারাবিশ্বে। দুই দেশের সীমান্তগ্রাম পানমুনজমে দুই নেতার যৌথ ঘোষণার মূল বার্তাগুলো এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।

১। দুই দেশ কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণুমুক্ত হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য অর্জনে সম্মত।

২। প্রায় ৬৫ বছর আগে শেষ হওয়া যুদ্ধবিরতিকে এই বছরেই যুক্তরাষ্ট্র, চীনসহ শক্তিশালী দেশগুলোর সহযোগিতায় আনুষ্ঠানিকভাবে যুদ্ধ অবসান করার চুক্তি করবে দুই দেশ।

৩। দুই দেশের সম্পর্ক বৃদ্ধির জন্য চলতি বছরে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন পিয়ং ইয়ং সফর করবেন।

৪। স্থগিত থাকা দুই দেশের বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া পরিবারের স্বজনদের সঙ্গে পুনর্মিলন আবারো চালু করা হবে। প্রতিবছর ১৫ আগস্ট সীমান্তে এই পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত হবে।

৫। সীমান্তবর্তী যৌথ শিল্পাঞ্চল কেসং এ দুই পক্ষের আলোচনার জন্য একটি লিয়াজোঁ অফিস গঠন করা হবে।

৬। ইন্দোনেশিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য এশিয়ান গেমসে অংশ নিবে উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া। আগামী ১৮ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বসবে এশিয়ান গেমসের এবারের আসর।

৭। দুই দেশ সীমান্ত এলাকায় যেকোন ধরণের হামলা বা সামরিক কর্মকাণ্ড বন্ধ করবে। উত্তেজনা সৃষ্ঠি করে এমন প্রচার প্রচারণা বন্ধ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ দুই দেশ।

৮। পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়ানোর জন্য দুই দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী পর্যায়ে নিয়মিত বৈঠক হবে। দুই দেশের সম্মেলনের চুক্তি বাস্তবায়নে কাজ করবে দুই পক্ষ।

sentbe-top