cosmetics-ad

যুক্তরাষ্ট্রের পথে উত্তর কোরিয়ার সাবেক গোয়েন্দা প্রধান

chol

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিম জং উনের সম্ভাব্য বৈঠককে সামনে রেখে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের ডান হাত হিসেবে পরিচিত দেশটির সাবেক গোয়েন্দা প্রধান কিম ইয়ং- শোল। পিয়ংইয়ং থেকে যাত্রা শুরুর পর বেইজিংয়ের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে দেখেছেন বার্তাসংস্থা এপির সাংবাদিকরা।

কিম জং উনের ডান হাত হিসেবে মনে করা হয় শোলকে। দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন তিনি।

দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদসংস্থা ইয়োনহাপ বলছে, ‘মঙ্গলবার সকালের দিকে চীনের রাজধানীতে পৌঁছেছেন কিম ইয়ং শোল। সেখান থেকে নিউইয়র্কগামী বিমানের টিকেট নিয়েছেন তিনি।’

এপি বলছে, ওয়াশিংটন ডিসিতে যাওয়ার কথা ছিল তার, কিন্তু পরে ফ্লাইট পরিবর্তন করে নিউইয়র্কের টিকেট সংগ্রহ করেছেন তিনি।

ইয়োনহাপ বলছে, সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও’র সফরের পর যুক্তরাষ্ট্রে কিম ইয়ং শোল সফরে যেতে পারেন বলে ব্যাপকভাবে প্রত্যাশা করা হচ্ছিল।

আগামী ১২ জুন সিঙ্গাপুরে কিম জং উনের সঙ্গে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঐতিহাসিক সম্মেলনের চূড়ান্ত প্রস্তুতির অংশ শোলের এই সফর।

কোরিয়া ইনস্টিটিউট ফর ন্যাশনাল ইউনিফিকেশনের বিশ্লেষক চুং সুং-ইয়ুন, ২০০০ সালের পর এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে উত্তর কোরিয়ার সরকারি সবচেয়ে জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা হিসেবে কিম ইয়ং শোল পা রাখতে যাচ্ছেন। তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার সেই সময়ের সরকারি শীর্ষ কর্মকর্তা ভাইস মার্শাল জো মিয়ং-রক স্বাক্ষাৎ করেন।

গত ২৪ মে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে আগামী ১২ জুনের অনুষ্ঠেয় বৈঠক বাতিলের ঘোষণা দিয়ে এক চিঠি লেখেন। তবে ২৫ মে আবারো সুর নরম করেন মার্কিন এ প্রেসিডেন্ট। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক বার্তায় ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন।

২৬ মে দুই কোরিয়ার যুদ্ধবিরতিগ্রাম পানমুনজমের উত্তর দিকে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে আকস্মিক বৈঠক করেন উত্তরের প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। দুই ঘণ্টাব্যাপি ওই বৈঠকে ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের স্বাক্ষাতের ব্যাপারে আলোচনা হয়।