‘রেমিটেন্স যোদ্ধারা অর্থনীতির মেরুদণ্ড’

malaysiaমালয়েশিয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম আবুল খায়ের দুলালকে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। সংবর্ধনায় বক্তারা বলেন, দেশের উন্নয়নের প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে রেমিটেন্স। আর এ রেমিটেন্স যোদ্ধাদের জীবনমান উন্নয়নে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় প্রবাসীদের অবদান অনস্বীকার্য। এসব যোদ্ধারা বাংলাদেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড।

বাঞ্ছারামপুর উপজেলার কৃতি সন্তান অধ্যক্ষ একেএম আবুল খায়ের দুলালকে সংবর্ধনা প্রদান করেছে মালয়েশিয়াস্থ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সমিতি। মঙ্গলবার রাজধানী কুয়ালালামপুরের ফার্স্ট বিজনেস ইন হল রুমে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. সাইদুল ইসলাম সরকারের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রুবেলে পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংবর্ধিত অতিথি একেএম আবুল খায়ের দুলাল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সমিতির উপদেষ্টা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাকির উল ইসলাম।

আবুল খায়ের দুলাল বলেন, দেশে ষড়যন্ত্র চলছে। বাংলাদেশ নিয়ে যারা ষড়যন্ত্র করবে তাদের বিরুদ্ধে এবং দেশ ও জাতির সামগ্রীক উন্নয়নের স্বার্থে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

malaysiaতিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নদর্শন ও উন্নয়ন কৌশল আজও আমাদের কাছে জাজ্বল্যমান এবং তার নীতি, আদর্শ ও কর্ম পদ্ধতি অবলম্বন করে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মেধা ও গতিশীল নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে উন্নত আধুনিক রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠায় কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, মালয়েশিয়ার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সমিতির পক্ষ থেকে আমাকে প্রবাসের মাটিতে যে সম্মান দিয়েছেন তা ভুলবার নয়। প্রবাস থেকে আপনারা রেমিটেন্স পাঠিয়ে দেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রেখেছেন আপনারাই দেশের সূর্য সন্তান।

আরও বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত হোসেন পান্না, ফরিদপুর জেলা সমিতির সভাপতি ও মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, শাখাওয়াত হক জোসেফ বি-বাড়িয়া জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাহাদুজ্জামান, ফরিদপুর জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবুল, গোপালগঞ্জ জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক তারিকুজ্জামান মিতুল, শরীয়তপুর জেলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জহির, মাদারীপুর জেলা সমিতির সভাপতি মো. শরিফ, সোহাগ সরকার, মো. মামুন, মো. আল আমিন, শহিদুল ইসলাম, ডলার, জাকির, মো. আনোয়ার হোসেন খান প্রমুখ। একেএম আবুল খায়ের দুলালকে ক্রেস্ট প্রদান করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সমিতির নেতারা।