sentbe-top

অনলাইনে আলমারি কিনে কোটিপতি এক ব্যক্তি, অতপর…

almariডিজিটাল যুগের অন্যতম সুবিধা অনলাইন শপিং। ঘরে বসেই স্মার্টফোনের ছোঁয়ায় প্রয়োজনীয় পণ্যটি পেয়ে যেতে কে না ভালোবাসে! তবে ইদানীং অনলাইনে কেনা পণ্য নিয়ে অনেকেই শঙ্কিত থাকেন। পণ্যের মান, গুণাগুণ ও রঙ যদি তেমনটি না হয়! কিন্তু এমন কোনো শঙ্কা নয়, অনলাইন থেকে একটি আলমারি কিনে অন্যরকম সমস্যায় পড়েছিলেন এক ব্যক্তি।

তিনি অনলাইনে কেনা আলমারিটির ভেতর পেয়ে যান গুপ্তধন। আনন্দের বদলে তিনি দুশ্চিন্তায় পড়ে যান। খুঁজতে থাকেন এ গুপ্তধনের আসল মালিককে। ঘটনাটি ঘটেছে ইউরোপের রোমানিয়ায়।

সংবাদমাধ্যম ডেইলি জার্নাল জানিয়েছে, বেলজিয়ামে একটি নির্মাণ সংস্থায় কাজ করেন ৩৩ বছর বয়সী রোমানিয়ার অধিবাসী স্যামুয়েল। গত ১৩ নভেম্বর দেশটির একটি জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেট থেকে একটি ছোট আলমারি কেনেন স্যামুয়েল।

আলমারিটি বাড়িতে আনার পর এর ভেতরে পাওয়া যায় একটি গুপ্ত সিন্দুক। আর তাতে একটি ধাতব বাক্স খুঁজে পায় তার ছেলে। ধাতব সেই বাক্স খুলে দেখেন ৯৫ হাজার ইউরো! (৯০ লাখ ২২ হাজার টাকা!), খুশি না হলে উল্টো ভীত ও চিন্তিত হয়ে পড়েন পরিবারটি।

স্যামুয়েলের স্ত্রী এডেলা জানান, টাকাগুলো জড়ো করে গুণে দেখার পর আমরা আর সে রাত ঘুমাতে পারিনি। সকাল হলেই এতগুলো টাকার আসল মালিকের সন্ধান শুরু করেন স্যামুয়েল।

যোগাযোগ করেন সেই অনলাইন শপিং পোর্টাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। এর পর বন্ধুর সঙ্গে গিয়ে টাকার আসল মালিককে খুঁজে বের করেন তিনি। হারানো টাকা পেয়ে অবাক হয়ে যান ওই ব্যক্তি। তিনি জানতেনই না যে, এ আলমারিতে এত টাকা গুপ্তাবস্থায় ছিল! তিনি জানান, সম্প্রতি তার বাবা মারা গেছেন। পৈতৃক সূত্রেপ্রাপ্ত এ আলমারিটির ব্যাপারে তিনি তেমন কিছু না জেনেই এটিকে বিক্রি করে দিয়েছিলেন।

এ ঘটনায় স্যামুয়েলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। তবে এমন সততায় পুরস্কৃত না করলেই নয়। ওই টাকার বান্ডেল থেকে প্রায় ৯ লাখ টাকা স্যামুয়েলকে দিয়ে দেন ওই ব্যক্তি।

sentbe-top