পাবনা বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী জাকারিয়া পিন্টু নিখোঁজ

pabna-pintuএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসন থেকে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী জাকারিয়া পিন্টু নিখোঁজ হয়েছেন। গতকাল সোমবার দুপুরের পর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। একই সঙ্গে পিন্টুর মোবাইল বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা। পিন্টু পাবনা জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে পাবনা-৪ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন পিন্টু। নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়ে দলের মনোনয়ন বোর্ডে সাক্ষাৎকারও দিয়েছেন তিনি।

নিখোঁজ জাকারিয়া পিন্টুর ছোট ভাই ঈশ্বরদী পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জুয়েল বলেন, ঢাকার মিরপুরের মনিপুর এলাকায় পরিবার নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন পিন্টু। সোমবার দুপুর ২টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হন। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশ, র‌্যাব ও ডিবি অফিসে সন্ধান করা হয়েছে। পিন্টুকে আটকের বিষয়ে তথ্য দিতে পারেনি তারা। কিন্তু কোথাও তাকে আমরা খুঁজে পাচ্ছি না।

জাকারিয়া পিন্টু নিখোঁজের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে পাবনা জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার ও দফতর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম বলেন, জাকারিয়া পিন্টু তৃণমূলে অনেক জনপ্রিয় নেতা। দিন-দুপুরে তার নিখোঁজ হয়ে যাওয়া সত্যিই মেনে নেয়া যায় না।

ঈশ্বরদী পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জুয়েল বলেন, পিন্টু ভাইকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অফিসগুলোতে খোঁজ নেয়া হয়েছে। তার মুঠোফোনও বন্ধ রয়েছে। আমরা তার খোঁজ পাচ্ছি না।

ঈশ্বরদী পৌর বিএনপির একাধিক নেতা জানান, সোমবার বেলা ২টার পর থেকে পিন্টু কোথায় আছে তা কোনোভাবেই জানা যায়নি। নিখোঁজের বিষয়টি শুনে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়েও তার সন্ধান পাননি তারা।

এদিকে জাকারিয়া পিন্টু নিখোঁজ হয়েছেন এমন সংবাদ ঈশ্বরদীতে ছড়িয়ে পড়লে বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে পিন্টুকে খুঁজে বের করার অনুরোধ জানান তারা।