cosmetics-ad

‘সফল নির্বাচন’ শেষে ইসিতে ‘খাইদাই উৎসব’

ec-food-festival

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হয়েছে পাঁচ দিন হতে চলল। পঞ্চম দিনের দুপুর যখন গড়িয়ে যাচ্ছিল, তখন নির্বাচন ভবন থেকে ভেসে আসতে শুরু করে মাছ ভাজির গন্ধ। শুধু মাছ ভাজি নয়, পিঠাসহ নানা ধরনের খাবারের আয়োজন চলছিল নির্বাচন ভবনের ফুয়ারা চত্বরে।

‘সফলভাবে’ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন করায় বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বিকেলে ‘ধন্যবাদ জ্ঞাপন অনুষ্ঠানের’ আয়োজন করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ অনুষ্ঠানের জন্যই করা হচ্ছিল খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা। এতে অংশ নেন ইসি কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এ আয়োজনের জন্য দায়িত্ব দেয়া হয় বাইরের একটি প্রতিষ্ঠানকে।

ইসিতে ঘুরে দেখা যায়, ফুয়ারা চত্বরে খাওয়া-দাওয়া তৈরি করার জন্য ছনের ছোট ঘর বানানো হয়। সেখানে হরেক রকম পিঠা, মাছ ভাজিসহ নানা প্রকার খাবার তৈরি করা হয়। এর সামনেই করা হয় মঞ্চ। ইসি চত্বরের জলাশয় থেকে তোলা হয় মাছ।

ec-food-festivalআয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ৬০০ লোকের জন্য খাবারের আয়োজন করা হয়। এর মধ্যে ৪৫০ জনের খাবার প্যাকেট করা হয় এবং ১৫০ জন সেখানেই খাওয়া সেরে নেন। খাবারের মধ্যে ছিল চিতই ভর্তা, নারিকেলি ভাপা, ঝালকুল পিঠা, সুতি জিলাপী, হোল ফিস (আস্ত মাছ) কাবাব, পানবিড়া (মসলা জাতীয় পান), পালিগুড় (পিঠার সঙ্গে খাওয়ার জন্য মিষ্টি জাতীয় দ্রব্য) ও বক্সপ্রেসো। সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে অনুষ্ঠান শেষ হলে শুরু হয় খাওয়া-দাওয়া ও প্যাকেট বিতরণ।

ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ প্রমুখ।

সিইসি, চার কমিশনারসহ ইসি সচিব তাদের বক্তব্যে ৩০ ডিসেম্বর দিনরাত পরিশ্রম করে নির্বাচনের মতো বিশাল কর্মযজ্ঞ সম্পাদনের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ