sentbe-top

মসজিদে গুলি চালিয়ে ছয় মুসল্লিকে হত্যা, কানাডীয় সেই যুবকের যাবজ্জীবন

alexanderদুই বছর আগে কিবেক শহরের একটি মসজিদে ঢুকে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৬ মুসল্লিকে হত্যা ও আরও ৫ জনকে গুরুতর আহত করার দায়ে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে কানাডার একটি আদালত। সাজাপ্রাপ্ত ২৯ বছর বয়সী আলেক্সান্দ্রে বিসোনেতে কারাগারে ৪০ বছর কাটানোর আগে প্যারোলে মুক্তির জন্য বিবেচিত হবেন না। বিবিসি।

সরকারী কৌঁসুলিরা অভিযুক্ত এ যুবকের দেড় শ’ বছরের কারাদ- চেয়েছিলেন। বিচারক ফ্রাঙ্কো হুট রাজি হলে এটিই হতো কানাডায় কোন অপরাধীকে দেয়া সর্বোচ্চ কারাদ-। রায়ে কিবেকের সর্বোচ্চ আদালতের এ বিচারক বলেছেন, ‘সাজা কখনোই প্রতিহিংসাপরায়ণ হতে পারে না।’ কানাডার আইনে খুনীর যাবজ্জীবন ও ২৫ বছরের আগে শর্তাধীনে মুক্তি (প্যারোল) না দেয়ার বিধান রয়েছে।

দুই বছর আগে, ২০১৭ সালের ২৯ জানুয়ারি রাতে বিসোনেতে কিবেকে ইসলামিক কালচারাল সেন্টারে ঝড়ের বেগে প্রবেশ করে নির্বিচারে গুলি চালান। এ ঘটনায় নামাজ পড়তে আসা ৬ ব্যক্তি নিহত ও আরও অন্তত ৫ জন গুরুতর আহত হন। আহতদের মধ্যে আয়মান দেরবালি নামে একজন এখন পক্ষাঘাতগ্রস্ত।

গ্রেফতার বিসোনেতে ২০১৭ সালের মার্চেই নিজের অপরাধ স্বীকার করে নেন। ‘যা করেছি তার জন্য লজ্জিত আমি, আমি সন্ত্রাসী নয়, ইসলামভীতিও নেই আমার,’ বলেছিলেন তিনি। বিসোনেতে পূর্বপরিকল্পিতভাবেই ওই হামলা চালিয়েছিলেন বলে রায়ে জানান বিচারক ফ্রাঙ্কো। সাজা দেয়ার ক্ষেত্রে কানাডীয় এ যুবকের মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিও বিবেচনায় নেয়া হয়েছে, বলেছেন তিনি।

এদিকে, তিউনিশিয়ার একটি আদালত সাত জিহাদিকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে। ২০১৫ সালে একটি জাদুঘর ও সমুদ্র সৈকতে হামলা চালানোর দায়ে তাদের এ সাজা দেয়া হয়। এসব হামলায় পর্যটকসহ অনেকের প্রাণহানি ঘটে।

শনিবার প্রসিকিউটররা এ কথা জানান। এ দুই মামলার পৃথকভাবে বিচার করা হয়। প্রসিকিউশন মুখপাত্র সোফিয়েনি স্লিতি জানান, আদালত কয়েকজন আসামিকে ৬ থেকে ১৬ বছরের কারাদ- দিয়েছে।

sentbe-top