cosmetics-ad

পাকিস্তানকে বয়কট করতে গিয়ে উল্টো মহাবিপদে ভারত

india-ioc

কাশ্মীর হামলার জের ধরে এখন উল্টো বিপাকে পড়লো ভারত। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) আপাতত ভারতে অলিম্পিকের সঙ্গে যুক্ত আন্তর্জাতিক কোনও প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পারবে না ভারতীয়রা।

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় ৪৫ জনেরও বেশি ভারতীয় পিআরপিএফ সদস্য নিহত হওয়ার জের ধরে এখন ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে বিরাজ করছে যুদ্ধাবস্থা। ভারতীয় রাজনীতিবীদ থেকে শুরু করে সাধারণ জনগন পর্যন্ত পাকিস্তানের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করার পক্ষে মত দিচ্ছে।

ক্রিকেটাররা পর্যন্ত ঘোষণা করছে, পাকিস্তানের সঙ্গে কোনো ধরনের ক্রিকেট সম্পর্ক না রাখার জন্য। অন্য খেলাতেও পাকিস্তানকে বয়কট করা শুরু করেছে ভারত। যার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা দেয়নি নয়াদিল্লি। যে কারণে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির আক্রাশের মুখে পড়ে গেলো ভারত।

শনিবার (আজ) থেকে নয়াদিল্লিতে শুরু হতে চলা শুটিং বিশ্বকাপে তো বটেই, এমনকি পরবর্তীতেও কোনোরকম আন্তর্জাতিক ইভেন্ট আয়োজনের ব্যাপারে ভারতের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। আইওসি’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এমন ঘটনা অলিম্পিক চার্টারের বিরোধী। তাই ভারত সরকারের পক্ষ থেকে লিখিত আশ্বাস না পাওয়া অবধি ভারতের উপর এই নিষেধাজ্ঞা বজায় থাকবে।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, দিল্লিতে আয়োজিত আন্তজার্তিক শুটিং বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ক্রীড়াবিদ জিএম বসির ও খলিল আহমেদকে ভিসা দেয়নি ভারত। এর বিরুদ্ধে সরব হয় পাকিস্তান শুটিং ফেডারেশন। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কাছে এ বিষয়ে আবেদন জানায় তারা। এরপরই আইওসি খড়গহস্ত হয় ভারতের ওপর।

অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছে, ‘ভারত নিয়মভঙ্গ করেছে। খেলাধুলোর মধ্যে রাজনৈতিক বিষয় টেনে আনা উচিত নয়। প্রত্যেক ক্রীড়াবিদকে সমান চোখে দেখতে হবে। ভারতকে চিঠি লিখে অলিম্পিক কমিটিকে জানাতে হবে যে, তারা সব প্রতিযোগীকে আসতে দিতে চায়। তারপরই ভারত প্রতিযোগিতা আয়োজনের অনুমতি পাবে।’

শ্যুটিং বিশ্বকাপ থেকেই অলিম্পিক্সে অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করা যায়। সেই কারণেই পাকিস্তানি ক্রীড়াবীদদের ভিসা না দেওয়ার সিদ্ধান্তের কারণে ভারতের বিরুদ্ধে আরও কড়া অবস্থান নিল আইওসি।

পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা না দেয়ার কারণে নয়াদিল্লি শুটিং বিশ্বকাপ থেকে ২০২০ টোকিও অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জনের জন্য ১৬টি কোটার প্রস্তাব তুলে নেয় আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া একটি বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক শুটিং স্পোর্টস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির লিসিন জানান, ‘আইওসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, শুটিং বিশ্বকাপের জন্য ভারত পাকিস্তান দলের ভিসা না দেয়ার কারণে ২০২০ টোকিও অলিম্পিকে থাকছে না পূর্ব প্রস্তাবিত কোনও কোটা।’

এ নিয়ে ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার প্রেসিডেন্ট রনিন্দর সিং জানান, ‘পাকিস্তানী শুটারদের ভিসা দেয়ার জন্য আমরা সর্বোতভাবে চেষ্টা করেছি। এরপরও ভিসা না দেয়ার বিষয়টি দুঃখজনক। তবে টুর্নামেন্টের ফরম্যাট যাতে না বদলায় সে ব্যাপারের আইএসএসএফর কাছে আর্জি জানাব আমরা।’

সৌজন্যে- জাগো নিউজ