cosmetics-ad

অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তাই পেলো না আফগানিস্তান

australia

বড় স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে এসেছে আফগানিস্তান। অধিনায়ক গুলবাদিন নায়েব জানিয়েছিলেন যেকোনো দলের বিপক্ষে লড়তে প্রস্তুত তার দল। তবে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে লড়াইটা ঠিক জমাতে পারল না আফগানরা।

ব্রিস্টলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কোনোরকমের পাত্তাই পায়নি গুলবাদিন নায়েবের দল। আফগানদের করা ২০৭ রানের মামুলি সংগ্রহ ৯১ বল হাতে রেখেই মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে টপকে গেছে অস্ট্রেলিয়া। ব্যাট হাতে ফিফটি করেছেন দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার এবং অ্যারন ফিঞ্চ।

২০৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই নিজেদের আধিপত্য বুঝিয়ে দেয় পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। অধিনায়ক ফিঞ্চ ও ওয়ার্নার মিলে মাত্র ১৬.২ ওভারে যোগ করেন ৯৬ রান। সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে ৬৬ রানে আউট হন ফিঞ্চ।

তবে দ্বিতীয় উইকেটে উসমান খাজাকে সঙ্গে নিয়ে এগুতে থাকেন ওয়ার্নার। ৬০ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ১৫ রানের মাথায় ফেরেন খাজা। শুরুতে রয়ে-সয়ে খেললেও পরে হাত খুলে মারা শুরু করেন ওয়ার্নার, জাগিয়ে তোলেন সেঞ্চুরির সম্ভাবনাও।

তবে শেষপর্যন্ত এবারের বিশ্বকাপের প্রথম সেঞ্চুরি করা হয়নি ওয়ার্নারের। তিনি অপরাজিত থেকে যান ১১৪ বলে ৮ চারের মারে ৮৯ রানের ইনিংস খেলে। স্টিভ স্মিথ আউট হন ১৮ রান করে। উইকেটে এসে প্রথম বলেই ৪ মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

এর আগে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন আফগান অধিনায়ক গুলবাদিন নায়েব। ম্যাচের প্রথম দুই ওভারের মধ্যেই প্রথম দুই ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ও হজরত উল্লাহ জাজাইয়ের উইকেট হারায় আফগানরা। দুজনেই আউট হন ব্যক্তিগত শূন্য রানে।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে হাসমত উল্লাহ শহীদি আর রহমত শাহ ৫১ রান যোগ করেন। দুজনে মিলে শুরুর বিপর্যয় কাটিয়ে উঠার আশা দেখাচ্ছিলেন আফগানদের। কিন্তু অজি স্পিনার অ্যাডাম জাম্পার ঘুর্ণিতে ৮০ রানের আগেই ৫ উইকেট হারায় তারা। ৬ চারে ৬০ বলে ব্যক্তিগত ৪৩ রান করে আউট হন রহমত। দাঁড়াতে পারেননি দলের অন্যতম ভরসা মোহাম্মদ নবি (৭)।

ষষ্ঠ উইকেটে নাজিবুল্লাহ জাদরানকে সঙ্গে নিয়ে বিপর্যয়ে সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক গুলবাদিন। দুজনে মিলে দ্রুত গতিতে রান তুলতে থাকেন দলের হয়ে। তবে ৩৪তম ওভারে অস্ট্রেলিয়া দলকে ব্রেক থ্রু এনে দেন অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। নাজিবুল্লাহ ও গুলবাদিন দুজনকেই একই ওভারে অ্যালেক্স কারের ক্যাচ বানান তিনি।

এক সময় আফগানরা ২০০ পেরোবে কিনা, তা নিয়ে শঙ্কা জেগেছিল। কিন্তু রশিদ খানের ১১ বলে ৩ ছয় ও ২ চারে ২৭ রানের ইনিংসে শেষপর্যন্ত ২০৭ রানে অলআউট হয় আফগানিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে বল হাতে ৩টি করে উইকেট নেন প্যাট কামিন্স আর অ্যাডাম জাম্পা।