sentbe-top

চীনের জিনজিয়াংয়ে হামলায় নিহত ৩১, আহত ৯৪

সিউল, ২২ মে ২০১৪:

চীনের জিনজিয়াংয়ের রাজধানীর একটি বাজারে হামলায় কমপক্ষে ৩১ জন নিহত ও প্রায় ১শ’ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার হামলাকারীরা দু’টি গাড়ি নিয়ে বাজারে ঢুকে লোকজনের ওপর চালিয়ে দেয় এবং বিস্ফোরক ছুড়ে মারে। কর্তৃপক্ষ জানায়, মুসলিম উইঘুর সম্প্রদায়ের আবাসভূমি এ অঞ্চলে এটি ছিল সর্বশেষ ‘ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা’।

_75019428_xinjiang21আঞ্চলিক সরকারের তিয়ানশন ওয়েব পোর্টালে বলা হয়, রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা দ’ুটি গাড়ি হঠাৎ জিনজিয়াংয়ের রাজধানী উরুমকিতে একটি জনাকীর্ণ বাজারে দ্রুত গতিতে ঢুকে পড়ে এবং একটি গাড়ি বিস্ফোরিত হলে ৩১ নিহত হয়। এতে প্রায় আরো একশ’ জন আহত হয়। এ হামলার ঘটনা গত বছর তিয়ানমেন স্কয়ারে চালানো হামলার ঘটনাকে মনে করিয়ে দেয়।

সিনা উইবোতে পোস্ট করা বিভিন্ন ছবিতে নিহতদের রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। চীনের সরকারি বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানায়, চীনের প্রেসিডেন্ট জি জিনপিং এ হামলার ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।’

জিনজিয়াংয়ে মাঝেমধ্যেই এ ধরণের ভয়াবহ সহিংসতার ঘটনা ঘটতে দেখা যায়। তবে সাম্প্রতিক সময়ে এ প্রবণতা অনেক বেড়ে গেছে। বেইজিং জানায়, তাদের সেখানে ধর্মীয় উগ্রবাদ ও বিদেশী গোষ্ঠির মদদে একটি সহিংস বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনের মোকাবিলা করতে হচ্ছে। তবে সমালোচকদের মতে এ অস্থিরতার কারণ অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং উইঘুর সম্প্রদায়ের লোকদের ওপর সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় নিপীড়ন।

তিয়ানশান এ হামলাকে একটি ‘ভয়াবহ সহিংস সন্ত্রাসী ঘটনা’ হিসেবে বর্ণনা করেছে। এতে বলা হয়, দু’টি গাড়ি নিরাপত্তামূলক ধাতব প্রাচীর ভেঙ্গে জনাকীর্ণ বাজারে ঢুকে পড়ে এবং একটি গাড়ির বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে ৩১ জন নিহত ও ৯৪ জন আহত হয়। স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টার সময় এ হামলা চালানো হয়। ওই বাজারে সকালের ব্যস্ত সময় চলাকালে এ হামলা চালানো হয়।

sentbe-top