sentbe-top

সিউল মেট্রোতে কোরিয়ান তরুণীকে শ্লীলতাহানির ঘটনায় মার্কিন কমান্ডারের ক্ষমাপ্রার্থনা

অনলাইন প্রতিবেদক, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৩, সিউলঃ
গত শনিবার সিউল মেট্রোতে মার্কিন সেনাদের দ্বারা কোরিয়ান তরুণীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় ক্ষমাপ্রার্থনা করেছে মার্কিন কমান্ডার। দ্বিতীয় পদাতিক ডিভিশন কমান্ডার এরিক ওয়াল্কার উইজংবু সিটি মেয়র আন-বিয়ংইয়ং এর সাথে সাক্ষাত করে এই ক্ষমাপ্রার্থনা করেন। তিনি ঘটনাটিকে মার্কিন সামরিক বাহিনী খুবই গুরুত্বের সাথে নিয়েছেন বলে জানান এবং দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে কোরিয়ান পুলিশকে সর্বোচ্চ সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 

সাধারনত মার্কিন সেনাদের অপরাধের বিচার মার্কিন সেনা আইন অনুযায়ী হয়ে থাকলেও সাম্প্রতিক একটি সংশোধন অনুযায়ী বড় কোন অপরাধমুলক ঘটনার ক্ষেত্রে কোরিয়ার আইনে বিচার করার বিধান রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত শনিবার সিউল মেট্রোর ১ নম্বর লাইনের ইনচন থেকে দুংদুছন গামী একটি ট্রেনে রাত নয়টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৬ জন মার্কিন সেনা ট্রেনে উঠে  উচ্চস্বরে গান গাইতে থাকেন এবং বিভিন্ন অঙ্গীভঙ্গীতে নাচতে থাকেন। এই সময় ওই বগীতে প্রায় ২০-৩০ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের একজন ২১ বছর বয়সী জিয়ন (ছদ্মনাম) তাদের এসব কর্মকান্ড বন্ধ করতে অনুরোধ জানান। কিন্তু ঐ সেনারা তা না করে ঐ মেয়েকে বিভিন্ন কুরুচিপুর্ণ কথা বলতে থাকেন এবং মেয়ে্টির ছবি তুলতে থাকেন। মেয়েটি প্রতিবাদ করলে সেনারা তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করে। মেয়েটি পুলিশকে ফোন করার পরে ঐ সেনারা পরের স্টেশনে নেমে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু কয়েকজন যাত্রীর সহযোগিতায় প্রায় ১০ মিনিট যাবত তাদেরকে বিভিন্নভাবে আটকানোর চেষ্টা করলেও পুলিশ আসার আগে ৩ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

পুলিশ উক্ত তিনজনকে মার্কিন সেনা কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দিয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার উক্ত সেনাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছে সিউল মেট্রো পুলিশ।

sentbe-top