cosmetics-ad

বোমায় প্রকম্পিত যশোর

jossor

গত রাত (বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত) একটার সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলামের বাড়িতে সন্ত্রাসীরা বোমা হামলা চালিয়েছে। যশোর শহরের ঘোপের এ বাসায় সন্ত্রাসীরা পরপর পাঁচটি বোমা মারে। বোমা হামলার ফলে জানালার কাঁচ ভেঙে যায়। এ ঘটনায় সাবেক এই মন্ত্রীর পরিবারের সদস্যরা চরম আতঙ্কের মধ্যে পড়েন।

তরিকুল ইসলামের বাড়ির দারোয়ান জানায়, রাত একটার দিকে ছয়-সাতজনের একদল সন্ত্রাসী এসে বাড়ির ভেতর বোমা নিক্ষেপ করে। ছোড়া বোমার তিনটি বাড়ির ভেতরের মূল গেটের সামনে ও দোতলার জানালায় লেগে একই সাথে বিস্ফোরিত হয়। এরপরই ঘরের সামনে আরো দুটি বোমা বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সন্ত্রাসীরা হেঁটে চলে যায়।

তরিকুল ইসলামের স্ত্রী অধ্যাপক নার্গিস বেগম ছাড়া বাসায় তেমন কেউ না থাকায় বোমা হামলার ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে বোমার বিকট শব্দে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। গভীর ঘুমের মাঝে বোমা বিস্ফোণের এমন শব্দে এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই বাসা ছেড়ে নিরাপদ স্থানে পালানোর চেষ্টা করে। বোমা বিস্ফোরণে কাঁচ ভেঙে পর্দা ছিড়ে ঘরের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে জালের কাঠি ও স্প্লিন্টার।

কোতোয়ালি থানার ওসি শিকদার আককাস আলী জানান, বোমা হামলার খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

তরিকুল ইসলামের বাড়ি ছাড়াও একই রাতে যশোর শহরে বিএনপির আরো কয়েক নেতার বাড়িতে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি মরহুম চৌধুরী শহিদুল ইসলাম নয়ন ও তার ছেলেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক সাবুর বাড়ি, দড়াটান চৌরাস্তা, গাড়িখানা জজকোর্ট মোড়, স্টেডিয়ামপাড়াসহ প্রায় অর্ধ শতাধিক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে গোটা শহর কেপে ওঠে। শহরময় ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক।