sentbe-top

"সিউল পরমানু নিরাপত্তা সম্মেলন ২০১২" পরমানু সন্ত্রাসমুক্ত নিরাপদ বিশ্ব গড়ার অংগীকার বিশ্ব নেতৃবৃন্দের

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  পরমানু সন্ত্রাসমুক্ত নিরাপদ বিশ্ব গড়ার অংগীকার করে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ বলেছেন আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার জন্য পরমানু সন্ত্রাস বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। ফুকুশিমার ঘটনার পর এই প্রথম পরমানু নিরাপত্তা বিষয়ে একমত হলেন বিশ্ব নেতৃবৃন্দ। দুইদিন ব্যাপী “সিউল নিউক্লিয়ার সিকিউরিটি সামিট ২০১২” এর সমাপনী দিনে মঙ্গলবার ৫৩ দেশের প্রধান “সিউল কমিউনিক” ঘোষনার মাধ্যমে অংগীকারবদ্ধ হন। সম্মেলনের সভাপতি দঃ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট লি বলেন “আমি দৃঢভাবে বিশ্বাস করি সিউল সামিটের মাধ্যমে বিশ্বনেতৃবৃন্দ রাজনৈতিক ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে পরমানু নিরসনে কাজ করবেন। তিনি সামিট চলাকালীন সময়ে ৮টি দেশের ৪৮০কেজি শক্তিশালী ইউরেনিয়াম ধ্বংস করার কথা উল্লেখ করেন যা দিয়ে ১৯টি পারমানবিক অস্ত্র তৈরী করা সম্ভব। তিনি বলেন বেলজিয়াম, ফ্রান্স, দঃ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট যৌথভাবে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ইউরেনিয়ামের পরিবর্তে নিন্মক্ষমতা সম্পন্ন ইউরেনিয়াম জ্বালানী ব্যবহারের ব্যাপারে গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি মনে করেন গত বছরের ফুকুশিমার ঘটনা বিশ্ববাসীর জন্য একটি বড় ধরনের শিক্ষা। উল্লেখ্য ২০১০ সালে ওয়াশিংটনে প্রথম সামিট অনুষ্টিত হয়। তৃতীয় সামিট ২০১৪সালে নেদারল্যান্ডে অনুষ্টিত হবে।

sentbe-top