sentbe-top

হিন্দুদের ৫ সন্তানে পুরস্কার, মুসলিমদের দু’য়ের অধিকে শাস্তি

hindu-muslim‘মুসলিম দম্পতির দুটির বেশি সন্তান হলে শাস্তি পাওয়া উচিৎ। শাস্তির ভয় না থাকলে মুসলিমরা কিছুতেই জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে উদ্যোগী হবে না।’ ভারতে ক্রমবর্ধমান মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বিতর্কিত এ মন্তব্য করলেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সভাপতি প্রবীণ তোগাড়িয়া।

অথচ কয়েকদিন আগে হিন্দুদের বেশি জন্মদানে উৎসাহিত করতে পুরস্কারের ঘোষণা দেয় চরমপন্থি হিন্দুদের সংগঠন শিবসেনা। পাঁচ সন্তান জন্ম দিলে হিন্দু পরিবার প্রতি দুই লাখ টাকা পুরস্কারের ঘোষণা দেন সংগঠনের আগ্রা ইউনিটের জেলা প্রধান ভিনু লাভানিয়া।

‘পিও রিসার্চ সেন্টার’ নামে একটি গবেষণা সংস্থার রিপোর্টে জানানো হয়, ২০৫০ নাগাদ বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিম নাগরিকের দেশ হিসেবে ইন্দোনেশিয়াকে টপকে যাবে ভারত। ধর্মীয় মাপকাঠির ভিত্তিতে চালানো সমীক্ষায় দেখা গেছে, গোটা পৃথিবীর সামগ্রিক জনসংখ্যার তুলনায় বেশি দ্রুত বাড়বে মুসলিমরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে উগ্র ডানপন্থি হিন্দু সংগঠনগুলো ভারতীয় হিন্দুদের বেশি বেশি করে সন্তান জন্ম দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে পরিবারগুলোকে।

ভিনু লাভানিয়া বলেন, ‘২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত যেসব হিন্দু পরিবার পাঁচ সন্তানের জন্ম দিয়েছে তাদেরকে দুই লাখ রুপি করে দেয়া হবে। আর এ জন্য এসব পরিবারকে মিউনসিপ্যাল করপোরেশন থেকে জন্ম নিবন্ধন সংগ্রহ করতে হবে।’

শিবসেনার পক্ষ থেকে মুসলমান জনগোষ্ঠী বৃদ্ধির খবরেও উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। সংগঠনটি একই সঙ্গে মুসলমান পুরুষদের বহুবিবাহ বন্ধে আইন করার আহ্বান জানিয়েছে।

তার একসপ্তাহ পর বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সভাপতি প্রবীণ তোগাড়িয়া বলেন, ‘জনসংখ্যা জিহাদের ফলে হিন্দু বিলুপ্ত হতে পারে, তাই সারাদেশে মুসলিমদের জনসংখ্যা রুখতে দুটি সন্তান আইন বাস্তবায়ন করা উচিৎ। যদি বর্তমান পরিস্থিতি চলতে থাকে তাহলে ভারতেও আফগানিস্তান এবং কাশ্মীরের মতো হিন্দু অস্তিত্ব মুছে যাবে।’

sentbe-top