cosmetics-ad

আফ্রিদির সঙ্গে যৌন সম্পর্ক, প্রাণনাশের হুমকি

afridi-arsi

পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে ভারতীয় মডেল ও অভিনেত্রী আরশি খানের গভীর সম্পর্ক নিয়ে বাতাসে গুঞ্জন উঠেছিল। আরশি খান গুঞ্জনটা উড়িয়ে দেননি। তারই ফলশ্রুতিতে এবার প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছেন মডেল এ অভিনেত্রী।

সম্প্রতি পাকিস্তানের তারকা ক্রিকেটার আফ্রিদি ভারতীয় মডেল কন্যার সঙ্গে গোপনে সময় কাটাচ্ছেন বলে খবর রটে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম গুলো থেকে জানানো হয়, আরশি খান নামের এ মডেলের সঙ্গে দুবাইয়ের হোটেলে ব্যস্ত সময় পার করেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। সেখানকার এক সেভেনস্টার হোটেলে আফ্রিদি গোপনে সাক্ষাত করেন আরশি খানের সঙ্গে।


আমি আফ্রিদির শয্যাসঙ্গী হয়েছি: আরশি খান


ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের একটি সূত্র থেকে জানা যায়, ভারতীয় এ মডেল কন্যা এর আগেও আফ্রিদির সঙ্গে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন। তার ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা যায়, দক্ষিণ মুম্বাইয়ের কলাবায় তাজমহল হোটেলে এর আগে আফ্রিদি-আরশি সাক্ষাৎ করেছিলেন। ভোপালে বাড়ি হলেও সম্প্রতি আরশি খান মুম্বাইয়ে বাড়ি কিনেছেন। ২-৩ মাস পরপর তিনি দুবাই ভ্রমণে যান। সূত্রটি জানায় আরশি খান দুইদিন আফ্রিদির সঙ্গে হোটেলে ছিলেন। আর তাদের বেশ অন্তরঙ্গ মুহূর্তে সময় পার করতে দেখা যায়।

গত ০৮ সেপ্টেম্বর আরশি খান জানান, আফ্রিদির সঙ্গে তাঁর যৌন সম্পর্ক ছিল। এ ব্যাপারে তিনি টুইট করেন, ‘হ্যাঁ, আফ্রিদির সঙ্গে আমার যৌন সম্পর্ক হয়েছে। আর আমি কার শয্যাসঙ্গী হব, সে ব্যাপারে ভারতীয় মিডিয়ার অনুমতি নিতে হবে নাকি? এটা আমার ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমার কাছে সম্পর্কটা ছিল ভালবাসার।’

নিজের অবৈধ যৌন সম্পর্কের চাঞ্চল্যকর এমন তথ্য ফাঁস করার পর থেকে পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত বলিউডের এ মডেল কন্যাকে কে বা কারা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

মুম্বাইয়ের মালাদ পুলিশ স্টেশনে আরশি খান একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, আমি কিছুকিছু ফোন পাচ্ছি যেগুলো লাহোর এবং করাচি থেকে আসছে। গত দুইদিন থেকে তারা আমাকে ফোন করছে। তারা আমাকে ফোন করে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। বলা হচ্ছে আমি ইসলামের অমর্যাদা করেছি।

তিনি অভিযোগে আরও জানান, অজ্ঞাত সেই ফোন থেকে আমাকে আরও বলা হচ্ছে, আমাকে ধর্ষণ করা হবে কিংবা দুবাইয়ে গেলে আমার মুখে এসিড নিক্ষেপ করা হবে।

অভিযোগে বলা হয়, মেরুত, দিল্লি আর জম্বু-কাশ্মির থেকেও আরশি খানকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

তবে এত ঘটনার পরও আফ্রিদির পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানানো হয়নি।