cosmetics-ad

প্রেসিডেন্টকে পার্ককে পদত্যাগের সময় বেঁধে দিল তার নিজ দল

park

দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষমতাসীন সেনুরি পার্টি গতকাল দেশটির প্রেসিডেন্ট পার্ক গুন হেকে পদত্যাগের জন্য আগামী বছরের এপ্রিল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য প্রেসিডেন্টকে এক সপ্তাহ সময় দেয়া হয়েছে। দলটি জানিয়েছে, এ সময়ের মধ্যে পার্ক গুন হে তাদের আহ্বানে সাড়া না দিলে তাকে অভিশংসনের মুখোমুখি হতে হবে।

সরে দাঁড়ানোর জন্য পার্ক গুন হেকে এপ্রিল পর্যন্ত সময় দেয়ার ব্যাপারে সেনুরি পার্টির ১২৮ আইনপ্রণেতার সবাই একমত হন। তারা নির্ধারিত সময়ের ছয় মাস আগেই আগামী বছরের জুনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আয়োজনের আহ্বান জানান। সেনুরি পার্টির নেতা চুং জিন-সুক বলেছেন, ‘পার্টির সব আইনপ্রণেতাই ঐকমত্যের ভিত্তিতে এ সময়সূচির অনুমোদন দিয়েছেন।’ চুংয়ের বরাত দিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা ইয়নহাপ এ কথা জানিয়েছে।

চুং বলেন, পার্টি মনে করছে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ক্ষমতা হস্তান্তর, স্থিতিশীলতা ধরে রাখা ও রাজনৈতিক দলগুলোকে পরবর্তী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হওয়ার সুযোগ দিতে এটাই সবচেয়ে উপযুক্ত সময়সূচি।

চলতি সপ্তাহেই পার্ক গুন হে জানান, তিনি প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাঁড়াতে রাজি আছেন। মঙ্গলবার তিনি বলেন, তার ভাগ্যে কী রয়েছে, পার্লামেন্টই তা নির্ধারণ করবে। বান্ধবী ছোয়ে সুন সিলের চাঁদাবাজিতে সহায়তার অভিযোগে পদত্যাগের চাপ বাড়তে থাকায় তিনি এ সিদ্ধান্ত নেন। সম্প্রতি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে লাখ লাখ লোক রাস্তায় নেমে আসে। পার্ক গুন হের সঙ্গে সুসম্পর্কের সুবিধা নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়ার কারণে ছোয়ে সুন সিলকে ‘কোরিয়ার রাসপুতিন’ আখ্যা দেয়া হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার কৌঁসুলিদের তদন্তে সন্দেহভাজন হিসেবে পার্ক গুন হের নাম এসেছে। তিনি হলেন দেশটির প্রথম প্রেসিডেন্ট, যাকে ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় তদন্তের মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

এদিকে পার্ক গুন হের ঘোষণার পর তার অভিশংসনের দাবি কিছুটা স্তিমিত হয়েছে। তবে প্রধান বিরোধী দল ডেমোক্রেটিক পার্টি বলেছে, তাকে জানুয়ারির শেষ নাগাদ ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত। ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা চু মি এ বলেছেন, ‘দক্ষিণ কোরিয়ার সবাই চান, যত দ্রুত সম্ভব পাক কুন হে সরে দাঁড়ান। তারা তাকে আর ক্ষমতায় দেখতে চান না।’

বিরোধী দলগুলো চাইছিল আজ শুক্রবারের মধ্যেই পার্ক গুন হেকে অভিশংসিত করা হোক। নিজ দল সেনুরি পার্টিও প্রথমে এতে সমর্থন দিয়েছিল। তবে দলটির সাবেক প্রধান কিম মু সং বলেছেন, এখন তারা প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতা ছাড়ার জন্য আরো চার মাস সময় দিতে চান।