cosmetics-ad

রিকশাচালকদের মাস্ক পরালেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

rikshaw

যেন থমকে দাঁড়িয়ে দেখার মতো দৃশ্য। পতিত ধুলা, উড়ন্ত ধুলা আর বহুমাত্রিক মারাত্মক জীবাণুর এই শহরে কত মানুষই তো মাস্ক ব্যবহার করেন। তবে এই মাস্ক যে সুধীজন, জ্ঞানীজনদের পাশাপাশি রিকশাচালকদেরও পড়া উচিত- সেটাই করে দেখালেন গ্রিন ইউনিভার্সিটির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

বুধবার মিরপুর-কাজীপাড়া রোডে যাতায়াতকারী অন্তত শতাধিক রিকশাওয়ালাকে একের পর মাস্ক পরিয়ে দেন বিশ্ববিদ্যালয়টির সোশ্যাল বন্ডিং ক্লাবের সদস্যরা। যে দৃশ্যটি দেখতে শুধু বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক-শিক্ষার্থীই নয়, দাঁড়িয়ে ছিলেন অফিসগামী মানুষ, দোকানদারসহ পথচারীরাও।

গ্রিন ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার ও ছাত্র বিষয়ক পরিচালক মো. শহীদ উল্লাহ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সচেতনতামূলক এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার লে. জেনারেল মো. মইনুল ইসলাম (এলপিআর), সমাজবিজ্ঞান ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারপারসন সহযোগী অধ্যাপক আবুল হোসেন, সহকারি অধ্যাপক শামীমা আক্তার, গ্রিন সোস্যাল বন্ডিং ক্লাবের মডারেটর সিনিয়র লেকচারার আহসান হাবীব, সিনিয়র লেকচারার মো. সামিউল ইসলাম, সাকিবা ফারজানা, লেকচারার মো. মুনিরুজ্জামান, ক্লাব সভাপতি খালেদা আফরীন সাথী, সাধারণ সম্পাদক রিফাত হোসেন, জিনিয়া ফেরদৌস, মো. শফিকুল ইসলামসহ স্বেচ্ছাসেবীরা উপস্থিত ছিলেন।