কর্মী বাছাইয়ে মূত্র পরীক্ষা করছে ছাত্রদল!

urine-test২০০৬ সালে ক্ষমতা ছাড়ার পর রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে ক্রমান্বয়ে দূরে সরে গেছেন বিএনপি ও দলটির সহযোগী সংগঠনগুলো নেতাকর্মীদের অনেকেই। ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় দল ত্যাগ করে অন্য কোনো দলে যোগ দিয়েছেন কিংবা নতুন দল গঠন করেছেন- এমন সাবেক বিএনপি নেতার সংখ্যাও কম নয়।

তবে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নতুন করে প্রস্তুত হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। দলটির সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরাও আসন্ন নির্বাচন নিয়ে সরব হয়েছেন। শহর-বন্দর-গ্রাম পর্যায়ে কর্মী সংগ্রহে নেমেছেন বিপদের সময়ে দল আঁকড়ে থাকা নেতাকর্মীরা।

কর্মী সংগ্রহে বেশ কিছু বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখছেন যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদলসহ বিএনপি এবং দলটির অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এর মধ্যে এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা ছাত্রদল। এর সদস্য হওয়ার জন্য মূত্র পরীক্ষা দিতে হবে শিক্ষার্থীদের।

উদ্যোগ ব্যতিক্রমী; তবে উদ্দেশ্য মহৎ। মূলত মাদক বা নেশা জাতীয় দ্রব্যে অভ্যস্ত নয়- এমন শিক্ষার্থীদের দলের কর্মী হিসেবে নেওয়ার জন্য আগ্রহীদের মূত্র পরীক্ষা করাচ্ছে বোয়ালমারী উপজেলা ছাত্রদল।

বোয়ালমারী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম জানান, উপজেলা ছাত্রদলের কমিটিতে আসতে ইচ্ছুক জানিয়ে যে সব ছাত্র নেতা দরখাস্ত করেছিল- তাদের মধ্য থেকে ৮ জনের মূত্র পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে। গত শুক্রবার ঢাকার একটি ক্লিনিকে এই পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়।

তিনি আরও জানান, বোয়ালমারী উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক পদপ্রত্যাশীদের মূত্র পরীক্ষা করানো হচ্ছে। যারা এসব পদের জন্য আবেদন করেছে- তাদের বেশিরভাগই বোয়ালমারীর বিভিন্ন কলেজে পড়াশোনা করে।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, তরুণদের মধ্যে মাদকের ব্যবহার ব্যাপকভাবে বাড়ছে। কিন্তু ছাত্রদলের নেতৃত্বে আমরা কোনো মাদকাসক্তকে চাই না। সে জন্যই বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির একজন সদস্যের পরামর্শে মূত্র পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে।