cosmetics-ad

সাজা শুনে কাঁদলেন ধর্ষক ধর্মগুরু রাম রহিম

gurmeet-ram-rahim

ধর্ষণে অভিযুক্ত ভারতের বিতর্কিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং ১০ বছরের দণ্ড শুনে কাঁদলেন। সোমবার হরিয়ানার সুনারিয়া কারাগারে বিচারপতি জগদ্বীপ সিং রায় ঘোষণার পর কেঁদে ফেলেন রাম রহিম।

এর আগে বহুল প্রতীক্ষিত এই মামলার রায় ঘোষণা করতে স্থানীয় সময় দুপুর দুইটা ১৬ মিনিটে সিবিআই’র বিচারপতি জগদ্বীপ সিং রোহতকের সুনারিয়া কারাগারে পৌঁছান। পরে দুই পক্ষের আইনজীবীরা যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনের জন্য ১০ মিনিটের সময় পান।

এসময় ধর্মগুরু রহিমের আইনজীবীরা আদালতের কাছে বলেন, রাম রহিম সিং একজন সমাজকর্মী। তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করেন। সুতরাং এ ব্যাপারটি বিবেচনা করে রায় দেয়া উচিত। এসময় বাদীপক্ষের আইনজীবীরা রাম রহিমের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান।

যুক্তি তর্ক উপস্থাপন শেষে সিবিআই’র বিশেষ আদালতের বিচারক জগদ্বীপ সিং ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রাম রহিমকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। আদালতের এই রায় শোনার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন বিতর্কিত এই ধর্মগুরু। এসময় তিনি আদালতের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন বলে ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল টাইমস নাউ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

এদিকে রায় ঘোষণার পর ধর্ষক ধর্মগুরু রাম রহিমের মেডিক্যাল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। বার্তাসংস্থা এএনআই বলছে, তাকে কয়েদি পোষাক পরানো হবে। এছাড়া কারাগারের বিশেষ একটি সেল তার জন্য বরাদ্দ রয়েছে।

ডেরা সাচ্চা সওদার চেয়ারম্যান ভিপাসসানা ইনসান রহিমের ভক্তদেরকে আদালতের রায় শান্তিপূর্ণভাবে মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।