গোপনে তৃতীয় বিয়ে করলেন ইমরান খান!

imran-khanতৃতীয়বার বিয়ে করলেন ইমরান খান। এই খবরে জল্পনা ছড়িয়েছে গোটা পাকিস্তানে। ‘দ্য নিউজ’ নামে পাকিস্তানি দৈনিকের দাবি, নতুন বছরের প্রথম দিনেই লাহোরে গোপনে নিকাহ সেরেছেন ৬৫ বছরের পাক ক্রিকেটের প্রাক্তন অধিনায়ক। উল্লেখ্য, গোপনেই রেহমা খানকে বিয়ে করেছিলেন ইমরান।

ওই দৈনিকের প্রতিবেদনের দাবি, ১ জানুয়ারি লাহোরে এক নারীকে বিয়ে করছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান ইমরান খান। পরেরদিন ইসলামাবাদে সন্ত্রাস দমন আদালতে হাজিরা দেন তিনি।

ইমরানের স্ত্রীর নাম জানা যায়নি। তবে লাহোরের গুলবার্গে থাকেন তিনি। কয়েকমাস আগেই সরকারি আধিকারিক স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে তার। ধর্মীয় পাঠ নিতে গিয়ে ওই নারীর সাথে আলাপ ইমরানের। সেখান থেকেই দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ইমরান খানের শাদি করিয়েছেন তার দলেরই নেতা মুফতি সৈয়দ। এনিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়েছেন তিনি।

মুফতি সাঈদের উদ্যোগেই দ্বিতীয় বিবাহ করেছিলেন ইমরান খান। সেবার তিনি বিয়ে করেছিলেন রেহাম খানকে। ২০১৫ সালের ৮ জানুয়ারি যেটা প্রকাশ্যে আসে। তবে, জানা গিয়েছে, রেহাম খানকেও ২০১৪ সালের নভেম্বরে প্রথমে গোপনে বিয়ে করেছিলেন ইমরান। তবে ইমরানের তৃতীয় বিয়ের ব্যাপারে মুফতি সাঈদ নীরবতা অবলম্বন করেন। তিনি এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্যই করেননি দ্য নিউজের কাছে।

যদিও এই ঘটনাকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন পিটিআই-এর মুখপাত্র আওন চৌধুরী এবং নাঈমুল হক। নাঈমুল হক বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নিয়ে বলতে পারি এই রকম কিছুই হয়নি। আমি তো লাহোরে তার সঙ্গেই ছিলাম। এমন কিছুই তো ঘটেনি! ইমরান যদি বিয়েও করে, তবে তা ২০১৮-এর সাধারণ নির্বাচনের পরেই করবে।’

১৯৯৫ সালের ১৬ ডিসেম্বর জেমিমা খানকে বিয়ে করেন ইমরান। সেটা ছিল তার প্রথম বিয়ে। দীর্ঘ ৯ বছর পর ২০০৪-এর ২২ জুন ইমরানের সঙ্গে জামিমার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর পাকিস্তানের টিভি সঞ্চালিকা রেহাম খানের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ইমরান খান।