বিরাট-আনুশকার বিয়ে অবৈধ!

virat-anuskaএমনও হয়! বিয়ে শেষ, হানিমুনও শেষ। বিয়েকালীন ছুটি কাটিয়ে বিরাট এখন দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকায়। বিয়ের পর অবশ্য প্রথম ইনিংসে ফ্লপ হওয়ায় তার স্ত্রী আনুশকাকে সমালোচনায় ধুয়ে দিচ্ছেন নিন্দুকেরা। এ নিয়ে খানিকটা বিরক্ত ক্রিকেটের ‘ব্যাডবয়’ খ্যাত বিরাট কোহলি।

এরইমাঝে এলো নতুন খবর। যে বিয়ে নিয়ে এতো মাতামাতি চারদিকে সেই বিয়েটাই নাকি হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী আনুশকাকে স্ত্রী ভাবতে চাইলে আবারও বিয়ে করতে হবে বিরাটকে! ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো এমন কথাই বলছে। ফলে বহুল চর্চিত এই বিয়ে হঠাৎ করেই প্রশ্নের মুখে পড়েছে।

sentbe BT

সূত্রের খবর, বিরাট-আনুশকার বিয়ের রেজিস্ট্রেশন বৈধভাবে হয়নি। ভারতের পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের আইনজীবী হেমন্ত কুমার বিদেশ মন্ত্রালয়কে আরটিআই (রাইট টু ইনফরমেশন) করেছিলেন। রোমের ভারতীয় দূতাবাস তার জবাব দিয়েছে ৪ জানুয়ারি। আর এই জবাবেই সামনে এসেছে বিরাট ও আনুশকা তাদের বিয়ের ব্যাপারে কোনো তথ্যই বিয়ের আগে ভারতীয় দূতাবাসের ম্যারেজ অফিসারকে দেননি। আর সেখানেই বেঁধেছে বিপত্তি।

হেমন্ত কুমারের বক্তব্য অনুযায়ী, কোনো ভারতীয় ব্যক্তি যদি অন্য কোনো দেশে গিয়ে বিয়ে করেন, তাহলে তাকে ভারতে প্রচলিত বিদেশি বিয়ের নিয়ম ১৯৬৯ মতে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। বিরুশকা জুটি সেই নিয়মের ধার ধারেননি।

তাই দেশের যে রাজ্যে বিরাট-আনুশকা থাকবেন, সেই রাজ্যের নিয়মানুযায়ী এখন তাদের দ্বিতীয়বার বিয়ে করতে হবে। এমনটাই নির্দেশ দিয়েছেন আইনজীবী হেমন্ত কুমার।

এই খবরে বেশ হাসির রোল পড়ে গেছে বলিউডপাড়ায়। বিব্রত আনুশকা-কোহলির পরিবার ও ভক্তরাও। আর দুই তারকা যে বেশ বিরক্ত তাতেও কোনো সন্দেহ নেই। দেখভা যাক, এই পরিস্থিতি কীভাবে সামাল দেন বিরুশকা।