sentbe-top

অস্ট্রেলিয়ায় ব্লাড ক্যান্সারে বাংলাদেশি গবেষকের মৃত্যু

kollol
মা ও বোনের সঙ্গে কল্লোল

হাসপাতালে জ্বর নিয়ে গিয়ে ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ার ৮ দিনের মাথায় মৃত্যু হয়েছে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী এক বাংলাদেশির। মৃত জাহাঙ্গীর আলম কল্লোল কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগে পিএইচডির শিক্ষার্থী ছিলেন। বাংলাদেশে তার বাড়ি নীলফামারি জেলায়।

ব্রিসবেনের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোর পৌনে ৩টায় রয়েল ব্রিসবেন হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে বলে কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে।

কল্লোলের স্ত্রী অভি জানান, ১০ জানুয়ারি জ্বর নিয়ে কল্লোল তাকেসহ রয়েল ব্রিসবেন হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যান। সেখানে চিকিৎসকরা কল্লোলকে বেশ কিছু পরীক্ষা করতে দিলে তার রক্তে লিম্ফোমার উপস্থিতি পাওয়া যায়।

১৩ জানুয়ারি প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টের কারণে রাত ১২টায় কল্লোলকে হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ বিভাগে স্থানান্তর করা হয়। পরদিন বুধবার সন্ধ্যা থেকে তার অবস্থার আরও অবনতি হয়। বৃহস্পতিবার সেখানেই কল্লোল মারা যান।

কল্লোলের মৃত্যুতে কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ব্রিসবেনে বসবাসরত বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে শোক নেমে আসে। কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অ্যাসোসিয়েশন তার লাশ দেশে পাঠানোর জন্য তহবিল সংগ্রহ করছে।

তাদের পক্ষ থেকে লাশ দেশে ফেরত পাঠাতে সহায়তা চাওয়া হয়েছে। ব্যাংক অ্যাকাউন্ট- ‘ইউনিভার্সিটি অব কুইন্সল্যান্ড বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন, কমনওয়েলথ ব্যাংক, বিএসবি নম্বর- ০৬৪১৫৮, অ্যাকাউন্ট নম্বর ১১০৩০৪০০।

নীলফামারীর ছেলে কল্লোল বাবার চাকরির সুবাদে বড় হয়েছেন রংপুরে। পড়াশোনা রংপুর ক্যাডেট কলেজে। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক করেন। এরপর কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে ব্রিসবেন এসেছিলেন।

সৌজন্যে: বিডিনিউজ

sentbe-top