সৌদিতে সততার পুরস্কার পেয়েছে এক বাংলাদেশি

badol soudiবিদেশের মাটিতে যখন কেউ  সততার পুরস্কার পায় তখন দেশের ভাবমূর্তি একটি ভিনদেশী জাতির কাছে আরও উজ্জল করে তোলা।

গত বৃহস্পতিবার (৮ই মার্চ) সৌদিতে কর্মরত কুমিল্লার দক্ষিণ সদরের বাসিন্দা বাদল হোসেন নামের এক বাংলাদেশি সৌদি নাগরিকদের কাছ থেকে পেয়েছেন তার সততার পুরস্কার।

পুরস্কার গ্রহণের সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন- সৌদির উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- ভারতীয়, পাকিস্তানি, মিশররীয় ও বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি। সবার উপস্থিতিতে বাদল হোসেন-এর হাতে সততার পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

বাদল হোসেন বলেন, ‘আমি নাইট ডিউটি করি একটি হাসপাতালে। প্রতিদিনের মতো সেদিনও ডিউটিতে গিয়েছিলাম। সকালের দিকে হাসপাতালের ভেতরে আমি মোটা অংকের কিছু সৌদি রিয়াল পাই। চিন্তা করছিলাম কী করব! ভাবলাম সাথে থাকুক কেউ খোঁজ করলে দিয়ে দিবো। কিন্তু ২৪ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও কেউ খোঁজ করলো না। তখন আমি হাসপাতালের মুদিরের অফিসে গিয়ে বিস্তারিত বলে টাকাটা দিয়ে আসলাম।’

তিনি জানান, সকাল ১০টার দিকে মুদিরের অফিসের সেক্রেটারি আমাকে ফোন করে অফিসে যেতে বললো। আমি অফিসে গেলাম। বড় মুদির হাসপাতালের সমস্ত কর্মচারীকে ডেকে একত্রিত করলো। সবার সামনে আমার হাতে কিছু উপহার তুলে দিল।

বাদল হোসেন জানান- সেক্রেটারি বললো, ‘নাও, ইহা তোমার সততার পুরস্কার’

বাদল হোসেন জানান, আমি পুরস্কার কী পেয়েছি, সেটা বড় কথা নয়। আমাকে যে পুরস্কার দিয়ে এতো বিদেশিদের সামনে সম্মান করা হয়েছে, এর মূল্য আমার কাছে অনেক।