খালেদাকে হাসপাতালে পাঠানোর অনুমতি চেয়ে কারা অধিদফতরের চিঠি

khaledaবিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানোর অনুমতি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর চিঠি দিয়েছে কারা অধিদফতর। কারা চিকিৎসক ও সিভিল সার্জনের সুপারিশ অনুযায়ী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো চিঠির বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত জানা যায়নি।

গত ২৬ এপ্রিল চিঠিটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে কারা অধিদফতরের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। তবে এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের সচিব ও কারা অধিদফতরের একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কেউ এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বিএনপির পক্ষ থেকে বারবার খালেদা জিয়াকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়ার দাবি জানানো হচ্ছে। এছাড়া গত ২২ এপ্রিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে সচিবালয়ে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল দেখা করে এ দাবি জানান।

গতকাল শনিবার বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে আরেকটি প্রতিনিধি দল কারাগারে তার সঙ্গে দেখা করে এসে উন্নত চিকিৎসা দেয়ার দাবি তোলেন।

বিএনপির চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেছিলেন, আজ (শনিবার) বেগম খালেদা জিয়াকে যেমন দেখেছি, তাতে আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। তার স্বাস্থ্য আসলেই অত্যন্ত খারাপ এবং হাসপাতালে ভর্তি করে তার চিকিৎসার প্রয়োজন।

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ফখরুল বলেন, তিনি যে হাসপাতালে যেতে চেয়েছেন অবিলম্বে সেখানে রেখে তাকে বিশেষভাবে চিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। এটা সরকারের দায়িত্ব। অন্যথায় তার যদি কোনো রকম ক্ষতি হয়, তাহলে দায়-দায়িত্বও সরকারকেই বহন করতে হবে।

কারা অধিদফতরের সূত্রটি জানায়, খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল ও স্বাভাবিক আছে। তবে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়ার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছে। তিনি রাজধানীর ইউনাইডেট হাসপাতাল লিমিটেড ও অ্যাপোলো হাসপাতাল লিমিটেডে চিকিৎসা নেয়ার ব্যাপারে মতামত জানিয়েছেন।

বিষয়টি নিয়ে বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, ‘প্রতিনিয়ত আমরা এ দাবি জানাচ্ছি। এ সংবাদটি এখনও আমাদের কাছে পৌঁছায়নি, দেখা যাক কারা কর্তৃপক্ষ কি করে।’

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী পঞ্চম বিশেষ জজ আদালত। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। আদালতের সাজা ঘোষণার পর থেকে সেখানে আছেন তিনি।

মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গত ৭ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) আনা হয়। ওইদিনই দুপুর ২টার দিকে আবারও নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে নেয়া হয় তাকে।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ