sentbe-top

আরব আমিরাতে অবৈধ প্রবাসীদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা

uae-workerসংযুক্ত আরব আমিরাতে অবৈধ প্রবাসীদের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। আগামী ১ আগস্ট থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত তিন মাস জেল জরিমানা ছাড়া অবৈধভাবে অবস্থানকারী অভিবাসীরা আমিরাত ছাড়তে পারবেন। এছাড়া আমিরাতে অবস্থানকে বৈধ করার সুযোগ পাবেন বলে জানায় আমিরাতের ‘ফেডারেল অথরিটি ফর আইডেন্টিটি অ্যান্ড সিটিজেনশিপ’ কর্তৃপক্ষ।

সংসদের সিদ্ধান্তানুযায়ী সব অবৈধ অবস্থানকারীদের বৈধতা নিতে ‘বৈধতা নিশ্চিত করে নিজেকে সুরক্ষা করুন’ শিরোনামের একটি ক্যাম্পেইন চালু করতে যাচ্ছে বলে তারা জানায়।’

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. ইমরান জানান, ‘খুবই ভালো সংবাদ। যারা দীর্ঘদিন ধরে এদেশে অবস্থানের বৈধতা নেই তারা সুযোগটা নিয়ে ‘নো-এন্ট্রি স্ট্যাম্প’ বা ‘ব্যান’ ছাড়া দেশে চলে যেতে পারবেন। কেউ চাইলে তাদের অবস্থান বৈধ করে নিতে পারবেন।’

তিনি বলেন, ‘যারা অবৈধভাবে এখানে আছেন তারা সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নিয়ে আমিরাত ত্যাগ করলে তা এদেশে আমাদের জন্য ইতিবাচক অবস্থান সৃষ্টি করবে। পরে নতুন করে তারা এদেশে আসার সুযোগ পাবেন।’

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘আমরা কাজ করে যাচ্ছি, এদেশে আমাদের ভিসা কড়াকড়ি অনেক শিথিল হয়ে এসেছে, গৃহকর্মী ও সিলেক্টেড কিছু ক্ষেত্রে যেমন জনতা ব্যাংকের ভিসা হচ্ছে, আমিরাত সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি আমাদের সরকারের সঙ্গে কাজ করছে, আমরা ইতিবাচক।’

‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি আবুধাবির’ সভাপতি ইফতেখার হোসেন জানান, ‘দীর্ঘদিন ধরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আমাদের ভিসা বন্ধ থাকাসহ বিভিন্ন কারণে অনেকেই অবৈধ হয়ে পড়েছিলেন, তারা চাইছিলেন ভিসা রিল্যাক্স হলে বৈধতার সুযোগ নেবেন, আমরা আশা করি তারা এ সুযোগটার সদ্ব্যবহার করবেন যাতে পরবর্তীতে তারা এখানে আসার সুযোগ নিতে পারেন।’

২০১২ সালের মধ্য আগস্ট থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশিদের জন্য প্রায় সব ধরণের ভিসা বন্ধ রয়েছে। এ কারণে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ শ্রমবাজারটি মুখ থুবড়ে পড়েছে।

সৌজন্যে- জাগো নিউজ

sentbe-top