কাবা শরীফে দুই ভারতীয়র লঙ্কাকাণ্ড!

indian-saudiসৌদি আরবের মক্কার পবিত্র কাবা শরীফে গিয়ে লঙ্কাকাণ্ড করে বসলেন দুই ভারতীয়। কাবা চত্বরে কোনো দেশের জাতীয় পতাকা নিয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ হলেও ওই দুই ভারতীয় তা উপেক্ষা করেন। নিজ দেশের ছবি হাতে পবিত্র কাবা শরীফের সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে গিয়ে লঙ্কাকাণ্ড করে বসেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, মক্কার পবিত্র কাবা শরীফের সামনে পতাকা নিয়ে যাওয়া নিষিদ্ধ। কিন্তু ওই দুই ভারতীয় গোপনে পতাকা নিয়ে যান। শুধু তাই নয়, পতাকা মেলে ধরে ছবি তোলেন। এসময় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা এগিয়ে এসে বাধা দিলে তাদের সঙ্গে বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন ওই দুই ভারতীয়। পরে তাদের আটক করে সৌদি নিরাপত্তা বাহিনী।

গুজরাটের ভদোদরার সরফরাজ পার্ক এলাকার বাসিন্দা ইমতিয়াজ আলি সৈয়দ তার দুই ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে মক্কায় গিয়েছিলেন ওমরাহ পালন করতে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে কাবা চত্বরে ইমতিয়াজ তার ছেলে উজিরের সঙ্গে পতাকা হাতে ছবি তোলেন। সৌদি পুলিশ বাঁধা দিলে তাদের সঙ্গে বাক-বিতণ্ডা থেকে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন।

পরে ইমতিয়াজের স্ত্রী ও সন্তান সৌদিতে থাকা এক আত্মীয়র সঙ্গে যোগাযোগ করেন। জেদ্দায় নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসের কর্মকর্তারা ওই ঘটনা জানার পর সৌদি কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেন। পরে তাদের তৎপরতায় শনিবার মুক্তি পায় দুই ভারতীয়।

ইমতিয়াজের ভাই ফাইয়াজ আলি বলেন, ভারতীয় পতাকা নিয়ে ছবি তোলার অপরাধে ইমতিয়াজ ও তার ছেলেকে গ্রেফতার করা হয়। সৌদি আরবে কাবা শরীফে ছবি তোলার ব্যাপারে কিছু বিধিনিষেধ রয়েছে।

এক টুইট বার্তায় সৌদিতে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাস বলছে, কাবা চত্বরে কোনো দেশের জাতীয় পতাকা দেখানো নিষিদ্ধ। দূতাবাসের কর্মকর্তারা ইমতিয়াজ ও তার ছেলে উজিরের সঙ্গে কথা বলেছেন। পরে সৌদি পুলিশ তাদের ছেড়ে দেয়।