cosmetics-ad

পার্কে নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত

namaj

পাবলিক পার্কে বিভিন্ন অফিসের কর্মীদের জুম্মার নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়া জেলা পুলিশ। এই আদেশ অমান্য করা হলে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, খোলা স্থানে নামাজ আদায়ের ফলে ‘শান্তি বিনষ্ট’ হচ্ছে এমন অভিযোগ আনে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কয়েকটি দল। তারা বিষয়টি নদীয়ার সিনিয়র পুলিশ সুপারিন্টেনডেন্ট অজয় পালের নজরেও আনেন। পরে গত সপ্তাহে প্রতিষ্ঠানগুলো কর্মীদের নামাজ বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

পুলিশের ওই নির্দেশনায় বলা হয়, ‘আপনাদের প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের সেক্টর-৫৮ পার্কে শুক্রবারের নামাজ আদায়ের বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। তাদের এমনটি করতে নিষেধ করেন। এবং এর পরও যদি তারা প্রার্থনা করতে যায়, তাহলে নির্দেশ লঙ্ঘনের জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে দায়ী করা হবে।’

ওই পার্কে গত পাঁচ বছর ধরে নামাজ আদায় করতেন মাওলানা নোমান। গত ১৮ ডিসেম্বর তাকে ও আদিল রশিদ নামের তার এক বন্ধুকে সেখানে নামাজ আদায়ের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ২২ তারিখে তারা জামিন পান।

নোমান এনডিটিভিকে বলেন, তারা নিষেধাজ্ঞার পর ওই পার্কে আর নামাজ আদায় করেননি। তারপরও তাদের গ্রেপ্তার করা করা হয়।

কোনো ধর্মের মানুষকে লক্ষ্য করে এই আদেশ দেওয়া হয়নি দাবি করে পুলিশ কর্মকর্তা অজয় পাল বলেন, ‘কিছু মানুষ সেক্টর-৫৮-এর পার্কে প্রার্থনা করার অনুমতি চেয়েছিলেন। কিন্তু তাদের কাছে শহরের ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি ছিল না। সেখানে অনেক মানুষের ভিড় হয়। সব ধরনের ধর্মীয় জমায়েতকে নিরুৎসাহিত করার জন্যই এই নোটিশ।’