cosmetics-ad

হংকংয়ে বাংলাদেশি তরুণীর সাফল্য

Fariha-Salma

বাংলাদেশি তরুণী বকর ফারিহা সালমা দিয়া বাকের, বয়স তার মাত্র ২০। এরমধ্যেই হংকংয়ের আইন পরিষদে সহযোগী হিসেবে কাজ করছেন তিনি। লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের খুব কম দক্ষিণ এশীয়দের একজন ফারিহা। তিনি এখন স্বপ্ন দেখছেন সেখানকার আইনপ্রণেতা হওয়ার।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে দেয়া সাক্ষাতকারে ফারিহা বলেন, সরকার ও প্রশাসনে আরো সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি দেখতে চাই। হংকং যেন সংখ্যালঘুদের বসবাসের সেরা শহর হয়।

Fariha-Salmaসিটি ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ফারিহার বাবা-মা হংকংয়ে আসেন ২৫ বছর আগে। হংকংয়ের কাউলুনে বাবা-মা ও ছোট ভাইয়ের সঙ্গে থাকেন তিনি। ফারিহা দুই বছর পরপরই আসেন বাংলাদেশে।

ফারিহা জানেন বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি, তেলেগু, ফিলিপিনো, মান্দারিন ও স্থানীয় ক্যান্টনিও উপভাষা। তিনি বলেন, হংকংয়ে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ক্যান্টনিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। যদি আপনি এই ভাষা ভালো না জানেন তবে উচ্চতর শিক্ষা থাকা সত্ত্বেও চাকরি পাওয়া কঠিন।

Hangkang-fariaভিনদেশের মানুষদের হংকংয়ের মূলস্রোতের অংশ হতে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। বাণিজ্য নগরীটিতে যারা সংখ্যালঘু হিসেবে বিবেচিত হন, স্কুলে ভর্তি হওয়া থেকে শুরু করে বাসাভাড়া, চাকরি সব ক্ষেত্রেই তাদের নানা বাধার সম্মুখীন হতে হয়।

ফারিহা আরও বলেন, আমি সরকার ব্যবস্থায় আরও বেশি সংখ্যালঘুদের অংশগ্রহণ চাই। আমি চাইবো হংকংয়ে সংখ্যালঘুরা আরও উন্নত জীবন পাবে।