cosmetics-ad

দক্ষিণ কোরিয়ায় দুইদিন ব্যাপী ইসলামিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

korea-workshop

মোহাম্মদ হানিফ, সিউল থেকে: দক্ষিণ কোরিয়ার ঐতিহ্যবাহী আনিয়াং মসজিদে দুইদিনব্যাপী ইসলামিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিবারের মতই দক্ষিণ কোরিয়ার ছুসকের ছুটিতে দুইদিন ব্যাপী ইসলামিক কর্মশালার আয়োজন করেছেন আনিয়াং আল রাবিতা মসজিদ কমিটি। ইসলামিক কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন, ধর্মীয় গবেষক-সৌদি ধর্ম মন্ত্রনালয় ও মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভারর্সিটির অধ্যাপক শাইখ ডক্টর মোহাম্মদ আব্দুস সামাদ সাহেব।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হয়ে শুক্রবার জুমার নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে কর্মশালাটি শেষ হয়েছে। শত শত ধর্মপ্রাণ অভিবাসীরা মুসলমান এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

শায়েখ আব্দুস সামাদ সাহেব পবিত্র কোরআন হাদীসের আলোকে বিংশ-শতাব্দীর জাহেলিয়াত ও তার থেকে উত্তলনের উপায় এবং তাকওয়া সম্পর্কে সুস্পষ্ট ও জ্ঞানগর্ব আলোচনা পেশ করেন। তিনি বলেন, আপনারা নিজেদের জন্মস্থান থেকে অনেক দূরে একটি ভিন্নদেশে, ভিন্ন সংস্কৃতি ও ভিন্ন পরিবেশের মধ্যে অবস্থান করতেছেন, যেখানে ইসলামী বিশ্বাস, ঈমান ও আকিদা বিষয়গুলো অত্যান্ত সংকুচিত। এই দেশটির ভূখণ্ডে নির্দিষ্ট আইন রয়েছে, যে আইনের মধ্যে থেকে একজন মানুষ তার ইচ্ছে অনুযায়ী সব কাজই করতে পারে।

সেই পরিবেশের মধ্যে থেকে দ্বীনের একজন প্রকৃত দায়ী হিসেবে তৈরি হওয়ার জন্য মহান আল্লাহ তায়লা আপনাদের কবুল করেছেন। যারা প্রকাশ্যে বা গোপনে আল্লাহর তাকওয়া ধারণ করে তারা সকল পরিস্থিতিতে তাদের আত্মপর্যালোচনা, আত্মসমালোচনা, ঈমানী চেতনা এবং তাকওয়ার দাবি অনুসারে আল্লাহ তার রাসুলের অনুগত্যর মধ্যে দিয়ে জীবনকে অতিবাহিত করে।

korea-workshopকোরিয়ার মত একটি বিধর্মী দেশেও ইসলামের আলোকে জীবন গড়ার লক্ষ্যে আল্লাহর দ্বীন কায়েমের দাওয়াতী কাজ অব্যাহত দেখে দক্ষিণ কোরিয়ার সকল বাংলাদেশি মুসলমানদের জন্য দোয়া করেন ডক্টর আব্দুস সোবহান সাহেব।

ইসলামিক কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে দারসূল কোরআন পেশ করেন, আনিয়াং মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা সাইয়েদ আব্দুর রহমান সাহেব। সাইফুল ইসলাম শশীর পরিচলনায় আরো আলোচনা করেন, ফেরদৌস খান, হাফেজ জামাল উদ্দিন, কামরুল হাসান(পিএসডি গবেষক ও খতিব নামিয়াং মসজিদ)প্রমুখ। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিতিদের ইসলামের ওপর বিভিন্ন বিষয়ে যথাযত প্রশ্নের উত্তর দেন কর্মশালার প্রধান অতিথি। এছাড়াও ছিলো ইসলামিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কর্মশালায় ইসলামিক সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন নবাংকুর শিল্পীগোষ্ঠীর সদস্যরা।

আনিয়াং আল রাবেতা মসজিদ ইসলামিক কর্মশালা ছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়ায় সর্বসাধরণের কাছে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দেয়া এবং কোরআন সুন্নাহর আলোকে মুসলিম উম্মাহর আত্মগঠনের মাধ্যমে আল্লাহর সন্তোষ আর্জনের লক্ষ্যে প্রতি মাসের দ্বিতীয় ও শেষ শনিবার রাতে শব্বেদারী তথা রাত্রি জাগরনের মাধ্যমে ইবাদত-বন্দেগীর ব্যবস্থা করা হয়। এতে দ্বীনের মৌলিক বিষয় সম্পর্কে একজন আলোচক বিষয়ভিত্তিক ইসলামের বিভিন্ন দিক সবার সামনে তুলে ধরেন।