sentbe-top

আবিষ্কার হলো মার্স ভাইরাসের ভ্যাকসিন

Mars-vactinএবার আবিষ্কার হলো মার্স ভাইরাসের ভ্যাকসিন। আবিষ্কৃত ওষুধটি প্রাণির মধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হচ্ছে বলে একটি গবেষণার প্রতিবেদনে বলা হয়। গত বৃহস্পতিবার ইন্টারন্যাশনাল সায়েন্স পাবলিকেশন প্রথমবারের মতো এই ভ্যাকসিন আবিষ্কারের কথা বলা হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম সায়েন্স ডেইলির প্রতিবেদন অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়য়ের পেরিল ম্যান স্কুল অব মেডিসিনের গবেষক ডেবিট বি উইনার বলেছেন, প্রাণির মধ্যে বানরে মার্স ভাইরাস প্রতিরোধক ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। গবেষক ডেবিট বি উইনার আরও বলেন, মার্স ভাইরাসের ভ্যাকসিনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

গবেষক ডেবিট বি উইনার জানান যে, ‘বানরের শরীরে পরীক্ষা করে এটি শত ভাগ সফল হয়েছে। তবে অধিকতর পরীক্ষার জন্য আমরা আরও ৬ সপ্তাহ এ ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে কাজ করবো। বর্তমানে উটের উপর ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালানো হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, মার্স হচ্ছে এক ধরনের ভাইরাস সংক্রমণ। এই ভাইরাসটি একটি করোনা ভাইরাস। মার্স ভাইরাসে আক্রান্ত হলে বেশ কয়েকদিন ধরে শরীরে জ্বর থাকে। এই জ্বরের মাত্রা ১০০.৪ ডিগ্রি বা তার অধিক হয়। আবার জ্বর আসার ২/৩ দিন পর সাধারণত শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। তবে অনেকের ক্ষেত্রে আবার ১০দিন পরেও শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে পারে। এছাড়া কাঁশিও হয়ে থাকে। মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রোম যাকে সংক্ষেপে মার্স বলা হয়। এটি বর্তমানে বিশ্বব্যাপী নতুন আতঙ্ক হিসেবে দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি এ ভাইরাস মিডল ইস্ট ছাড়াও কোরিয়াতে ছড়িয়ে পড়ায় দেখা দিয়েছে উদ্বেগ ও আতঙ্ক। মার্সের সবচেয়ে বড় আতঙ্কের বিষয় হলো মার্স আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুহার অনেক বেশি। তাই গবেষকরা এর প্রতিশেধক উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করছেন।

sentbe-top