জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ!

bangladesh-zim-wiবাংলাদেশে নিরাপত্তার ঝুঁকির অজুহাত দেখিয়ে সফরে আসেনি অস্ট্রেলিয়া। এটি পুরোনো খবর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড থেকে জানানো হয়েছিল, অস্ট্রেলিয়া সিরিজটি স্থগিত করায় বাংলাদেশের ক্রিকেট কিছুটা হোঁচট খেলেও তা শিগগিরই কাটিয়ে উঠতে যাচ্ছে। আগামী মাসেই (নভেম্বরে) দুটি টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসতে চায় জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল।

এবারে যোগ হলো আরেকটি নতুন খবর। সূচি জটিলতায় নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠিত হওয়ার প্রস্তাব থাকলেও হতে পারে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ (ওয়ানডে সিরিজ)। আর তাতে অংশ নিতে চায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান নাইমুর রহমান দুর্জয় এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন।

বাংলাদেশ দল সর্বশেষ আন্তজার্তিক ম্যাচ খেলেছে দুই মাস আগে ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। চলতি মাসেই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া সিরিজ। সেটি আপাতত না হওয়ায় বাংলাদেশের প্রস্তাবের ভিত্তিতে নভেম্বরে টেস্ট সিরিজ খেলতে জিম্বাবুয়ে রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

৯ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া আইসিসি মিটিংয়ে জিম্বাবুয়ের অফিসিয়ালদের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে। জিম্বাবুয়ের সঙ্গে জানুয়ারিতে যে সিরিজ হওয়ার কথা ছিল এ সিরিজটি সেটিরই অংশ। তবে, এবারে শুধু দুটি টেস্ট হওয়ার কথা রয়েছে। টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে সিরিজটি হবে পূর্ব নির্ধারিত সময়েই।

দুর্জয় বিসিবি সভাপতির কথার সূত্র ধরেই জানান, আমাদের সভাপতি আইসিসি’র সভায় এগুলো নিয়ে আলোচনা করবেন। তবে, আমাদের সামনে রয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) আসর। সেটি যাতে টাইট সিডিউলের মধ্যে পড়ে না যায় সেদিকেও আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। আমরা চাচ্ছি বিপিএলকে কোনো ভাবে ডিস্টার্ব না করে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সিরিজ আয়োজনের।

তিনি আরও যোগ করে বলেন, জিম্বাবুয়ে যদি টেস্ট খেলতে না চায় তবে, সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে আমরা আরেকটি অপশন রেখেছি। সেটা হলো জিম্বাবুয়ে টেস্ট খেলতে না চাইলে আর সূচি জটিলতা দেখা দিলে আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজন করব। দেশের ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে আমাদের এগুলো ভেবে রাখতে হবে।

জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে দু’টি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-২০ ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল জিম্বাবুয়ের। নভেম্বরে টেস্ট সিরিজ হওয়ার পর পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী জানুয়ারিতে হবে বাকি দুই ফরম্যাটের (ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি) ম্যাচগুলো।

গত মে মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জানিয়েছিল নভেম্বর মাসে বাংলাদেশ সফরে আসতে চায়। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড শুধুমাত্র চার ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার প্রস্তাব দেওয়ায় সিরিজটি চূড়ান্ত করেনি বিসিবি। বিসিবি চেয়েছিল দুইটি ওয়ানডে, দুইটি টি-টোয়েন্টি অথবা তিনটি ওয়ানডে ও দুইটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে। তাতে সায় মেলেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের।