sentbe-top

টেস্ট থেকে অবসরের ঘোষণা মালিকের

malikপাকিস্তানের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান শোয়েব মালিক টেস্ট ক্রিকেট না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মঙ্গলবার শারজায় অনুষ্ঠিত পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার টেস্টে তৃতীয় দিন শেষে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দেন শোয়েব মালিক।

পাঁচ বছর পর পাকিস্তানের জার্সিতে টেস্টে সুযোগ পেয়েই আবুধাবিতে ইতিহাস গড়লেন শোয়েব মালিক। গত মাসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাট হাতে প্রথম টেস্টেই ২৪৫ রানের ক্যারিয়ার সেরা স্মরনীয় এক ইনিংস খেলেন তিনি। ওয়ানডে অধিনায়ক আজহার আলী ইনজুরিতে না পারলে হয়তো সে সুযোগ পেতেন না পাকিস্তান এই অলরাউন্ডার।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী টেস্টের তৃতীয় দিনে এই ফরম্যাট থেকে অবসরের ঘোষণা দেন তিনি। সম্প্রতি সব ফরম্যাটেই দারুণ পারফর্ম করায় তাকে হয়তো আরও কিছু দিন ২২ গজের পিচে দেখতে চেয়েছিল ভক্তরা। কিন্তু আবেগী মালিক বলেন, ‘আমাদের বেশ কিছু তরুণ তারকা খেলোয়াড় রয়েছে এবং বিদায় বলার এটাই সঠিক সময়। পরিবারই আমার কাছে প্রথম। আমি এখন ২০১৯ বিশ্বকাপের দিকে নজর দিতে চাই।’

২০১০ সালের পর আবারও টেস্ট দলে সুযোগ পেয়ে মাত্র তিন ম্যাচ শেষেই অবসরের ঘোষণা দিলেন মালিক। তবে প্রথম ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ২৪৫ রানের পর মনে রাখার মতো কোনো ইনিংস খেলতে পারেননি তিনি। সর্বশেষ চার ইনিংসে তার রান ছিলো ০,২,৭, ০ রান। সর্বশেষ শারজা টেস্টে ডাক মারেন তিনি। মঙ্গলবার জেমস অ্যান্ডারসনের ইনসুইংঙ্গারে এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে শূন্য রানেই সাজঘরে ফেরেন ৩৩ বছরের এই তারকা।

তবে ব্যাট হাতে শেষ কয়েক ইনিংসে জ্বলে উঠতে না পারলেও বল হাতে বেশ উজ্জ্বল ছিলেন মালিক। শারজা টেস্টের প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের অলআউট করতে ৯.৫ ওভার বল করে ৩৩ রানের খরচায় মূল্যবান ৪টি উইকেট পান তিনি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে পাকিস্তানের জার্সিতে ২০০১ সালে টেস্টে পথচলা শুরু হয় মালিকের। ৩৪ ম্যাচে ৩৫.৭৬ গড়ে ১৮৬০ রান করেন তিনি। যার মধ্যে ৩টি সেঞ্চুরি এবং ৮টি হাফসেঞ্চুরি রয়েছে।

sentbe-top