cosmetics-ad

৩৭০ রানের লক্ষ্য পেল বাংলাদেশ

du-plesis

সিরিজের শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ৩৭০ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ইস্ট লন্ডনের বাফেলো স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারের খেলা শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৬৯ রান সংগ্রহ করে প্রোটিয়ারা।

আজ শনিবার সিরিজের শেষ ম্যাচে ইস্ট লন্ডনের বাফেলো স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ওপেনার তেম্বা বাভুমা ও ডি কক। তারা দুই জন শক্ত দেয়াল গড়ে বিশাল রানের দিকে এগিয়া যাচ্ছিলেন। তাদের সেই দেয়ালে প্রথম আঘাত হানলেন অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ।

মিরাজের প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন তেম্বা বাভুমা। ব্যক্তিগত ৪৮ রানের মাথায় লিটন দাসের গ্লাবসবন্দি হয়ে ফেরেন তিনি। এরপর ক্রিজে যোগ দেন অধিনায় ডু প্লেসিস। তবে ডু প্লেসিস ক্রিজে যোগ দেওয়ার পরপরই প্রোটিয়া শিবিরে আবারও আঘাত করেন মিরাজ।

মিরাজের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন আরেক ওপেনার ডি কক। ব্যক্তিগত ৭৩ রান এবং দলীয় ১৩২ রানের মাথায় মিরাজের বলেই তার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। এরপর ডু প্লেসিসকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে এসেছেন এইডেন মারক্রাম। তবে রান নিতে গিয়ে চোট পেয়ে ব্যক্তিগত ৯১ রানে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় প্রোটিয়া অধিনায়ককে।

এরপর মারক্রামের সঙ্গে যোগদেন এবি ডি ভিলিয়ার্স। কিন্ত ভিলিয়ার্সের সঙ্গে ক্রিজে বেশি ক্ষণ থাকতে পারেননি মারক্রাম। দলের ২৮৯ রান এবং ব্যক্তিগত ৬৬ রানে ইমরুল কায়েসের শিকার হন মারক্রাম।

মারক্রাম ফেরার পর ভিলিয়ার্সের সঙ্গ ক্রিজে যোগ দেন ফারহান বেহারডেইন। তবে ব্যক্তিগত ২০ রানের মাথায় রুবেল হোসেনের বলে মাশরাফির হাতে ধরা পড়েন ভিলিয়াস। এরপর ক্রিজে যোগ দেন উইলেম মুলডার।

দলীয় ২২৯ রান এবং ব্যক্তিগত মাত্র ২ রানের মাথায় তাসকিনের শিকার হন মুলডার। এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়ে ফেরেন তিনি। এরপর বেহারডেইনের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন পেহলুকওয়ে। মাত্র ৫ রানে তাকে ফেরান তাসকিন আহমেদ।