Search
Close this search box.
Search
Close this search box.

দেশের প্রথম স্পোর্টস রেডিওর যাত্রা শুরু

sports-radioদেশে প্রথমবারের মতো যাত্রা শুরু করল স্পোর্টস এফএম রেডিও স্টেশন রেডিও এজ ৯৫.৬। একঝাঁক ক্রীড়াবিদকে সঙ্গে নিয়ে কেক কেটে রেডিওটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে আম্বার স্টুডিওতে এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্যদিয়ে বিশেষায়িত এ রেডিওটি আনুষ্ঠানিক সম্প্রচার শুরু করে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম, ভারোত্তলনে স্বর্ণজয়ী মাবিয়া আক্তার সীমান্ত, রেডিও এজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর শাফকাত সামিউর রহমান, ডিরেক্টর আশিক আহমেদ ও মির্জা শিবলী।

ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেন, ‌‌‘আমরা খেলোয়াড় হিসেবে সবসময় চেয়েছি শুধুমাত্র ক্রীড়াজগৎ নিয়ে একটি চ্যানেল হোক। সেই চাওয়া আজ পূরণ হলো। রেডিও এজের মাধ্যমে সেই যাত্রা শুরু হলো। শুধুমাত্র খেলার সংবাদ নিয়ে চ্যানেল হলে খেলোয়াড়রা উৎসাহিত হবে। রেডিও এজকে বলব, আপনারা শুধু ক্রিকেট বা ফুটবলকে হাইলাইট করবেন না, অন্যান্য যেসব খেলা রয়েছে সব খেলাকেই হাইলাইট করবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘রেডিও সবসময় তরুণদের নিয়ে কাজ করে। যুবকরা খেলা নিয়ে থাকলে মাদকের হাত থেকে তারা বেঁচে থাকবে। আশা করি, বাংলাদেশে আরও অনেক বেশি স্পোর্টস চ্যানেল হবে।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বলেন, ‘এ রেডিওটি অবহেলিত খেলোয়াড়দেরও উঠে আসতে সাহায্য করবে। এমন অনেক খেলোয়াড় আছেন, যারা শুধু খেলাকে ভালোবেসেই খেলে যান, তাদের কথাও এ রেডিও তুলে ধরবে।’

chardike-ad

পাশাপাশি সাউথ আফ্রিকা সিরিজে পরাজয়কে তিনি দলের জন্য শিক্ষা বলে আখ্যায়িত করেন। ভবিষ্যতে এ ভুল শুধরে ভালো কিছু করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন টাইগার অধিনায়ক।

জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশের ক্রীড়াজগৎকে উৎসাহিত করার জন্য কোনো বিশেষায়িত চ্যানেল ছিল না। রেডিও এজের মাধ্যমে যাত্রা শুরু হলো। এর মাধ্যমে খেলোয়াড়রা উৎসাহিত হবেন। আশা করি, ধীরে ধীরে আরও অনেক স্পোর্টস চ্যানেল হবে।’

রেডিও এজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাফকাত সামিউর রহমান বলেন, ‘নিশ্চিতভাবেই রেডিও এজ শুধু ধারাভাষ্য কেন্দ্রিক একটি স্টেশনে পরিণত হবে না। এ স্টেশনটি প্রধান দুই খেলা ক্রিকেট ও ফুটবলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না। দেশ ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সবধরনের খেলার আপডেট, ধারাভাষ্য, ভেতরের খবর, খেলোয়াড়দের ব্যক্তিজীবন, স্পোর্টস ফ্যাশনসহ ক্রীড়া সম্পৃক্ত সম্ভাব্য সব বিষয়ই হবে রেডিও এজের অনুষ্ঠানের উপজীব্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের স্পোর্টস সাংবাদিকদের নিয়ে একটি বিষেশজ্ঞ প্যানেল তৈরির পরিকল্পনাও করবে রেডিও এজ। যারা রেডিওর শ্রোতাদের জন্য মানসম্মত ও বিশ্লেষণধর্মী অনুষ্ঠান নিশ্চিত করবেন।’ এ ব্যাপারে বাংলাদেশের স্পোর্টস সাংবাদিকদের সহায়তা ও সমর্থনও কামনা করেন তিনি।

রেডিও এজের পরিচালক মির্জা শিবলী বলেন, ‘বাংলাদেশে এক সময়ের জনপ্রিয় কিন্তু কালের গর্ভে হারিয়ে যাওয়া খেলাগুলোকে আমরা ফিরিয়ে আনতে চাই নতুন প্রজন্মের সামনে। আমরা দেশের সব স্পোর্টস ফেডারেশনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে চাই।’

রেডিও এজ শোনা যাবে এফএম ৯৫.৬ টিউন করে। পাশাপাশি অনলাইনেও রেডিও এজের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে সরাসরি সব অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে।