sentbe-top

রাতে মাশরাফির রুমে এসে দুঃখ প্রকাশ শুভাশিসের

mashrafe-suvasisক্রিকেট অঙ্গন ছাড়িয়ে সারা দেশে তোলপাড়- মাশরাফির সঙ্গে ক্রিকেট মাঠে বচসা শুভাশিস রায়ের। বচসার এক পর্যায়ে মাশরাফির দিকে তেড়ে যান শুভাশিস। যিনি শুধু জাতীয় দলের অধিনায়কই নন, সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ, নাসির, সাব্বির, মোস্তাফিজ, তাসকিন, রুবেল, মিরাজসহ গোটা প্রজন্মের অগ্রজ, অভিভাবক- সেই মাশরাফিকে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তেড়ে গেলেন শুভাশিস, ভাবা যায়! এ কী করলেন শুভাশিস? সবার মনে রাজ্যের ক্ষোভ। মাশরাফি ভক্তদের মাঝে তীব্র প্রতিক্রিয়া।

সবার একটাই কথা- মাশরাফি সবার বড় হয়েও ছোট ভাই তুল্য শুভাশিসের কাছে সরি বলেছেন, দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বড় হয়ে তার আরও সংযত থাকা উচিৎ ছিল- প্রকাশ্য সংবাদ সম্মেলনে এমন কথা বলে উদার মানসিকতার পরিচয়ও দিয়েছেন। কিন্তু শুভাশিসের প্রতিক্রিয়া কী? তিনি কি তার মাঠের স্বদম্ভ ও উগ্র আচরণের জন্য অনুতপ্ত? না কি খেলা শেষেও রয়ে গেছে মাঠের ঘটনার জের? শুভাশিস কি মাশরাফির কাছে ‘সরি’ বলেছেন? এমন জানতে উন্মুখ সবাই।

এ প্রশ্নর জবাব অবশ্য খানিক্ষণ আগে মিলেছে। মাশরাফি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে উতপ্ত পরিস্থিতি ঠান্ডা করেছেন। তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, ‘আমরা আমরাইতো।’

আসলেই তো তাই। বিপিএলে মাশরাফি রংপুরের অধিনায়ক। আর শুভাশিস চিটাগাং ভাইকিংসের ক্রিকেটার। তাতে কি আসলে তো দুজনই বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার।

সর্বশেষ খবর, দুজনার মধ্যে আপসরফা হয়ে গেছে। রাতে হোটেলে মাশরাফির রুমে গিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন শুভাশিস। হাওয়া থেকে পাওয়া খবর নয়। খোদ মাশরফি নিজেই জানিয়েছেন এ তথ্য।

এই যে বড় ভাই মাশরাফি আর ছোট ভাই শুভাশিসের মিলে যাওয়া। এক ঘরে এক টেবিলে বসে ডিনার করা এবং প্রাণ খুলে মেশা ও কথা বলা- সেটাই ছিল সবার কাম্য।

sentbe-top