শেষ পর্যন্ত রংপুর-কুমিল্লার খেলা গড়াল পরদিন

bplবৃষ্টির শঙ্কা ছিল দুপুর ও বিকেলে। কিন্তু বেরসিক বৃষ্টি ঝরল সন্ধ্যার পর। মিরপুর শের-ই-বাংলায় ফাইনালের টিকিট পেতে সন্ধ্যা ৬টায় মাঠে নেমেছিল রংপুর ও কুমিল্লা।

কিন্তু বেরসিক বৃষ্টিতে পণ্ড দুই দলের মহারণ। খেলা শুরু হওয়ার ৩৫ মিনিট পর যে বৃষ্টি শুরু হয় তা টিকে প্রায় পৌনে তিন ঘন্টা। রাত নয়টার কিছু আগে থেমে যায় বৃষ্টি। ৫ ওভার পর্যন্ত খেলা হলেও সেই সিদ্ধান্ত আসার কথা রাত সাড়ে নয়টার আগে। অর্থ্যাৎ কাট আউট টাইম রাত সাড়ে নয়টা।

কিন্তু তাতে উল্টে যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল হঠাৎ তাদেরকে সিদ্ধান্ত জানায়, দুই ঘন্টা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে কাট অফ টাইম। রংপুর রাজী হলেও তাতেই বিপত্তি কুমিল্লার। কোনোভাবেই এ সিদ্ধান্ত মানবে না তারা।

কারণ ১২ ম্যাচে ৯ জয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে কুমিল্লা। বাইলজ অনুযায়ী শীর্ষ দল চলে যাবে ফাইনালে। পাশাপাশি কোনো রিজার্ভ ডে না থাকায় তারই ফাইনাল ডিজার্ভ করে। কিন্তু দুই ঘন্টা বাড়তি সময়ের কথা কোথাও লিখা নেই। হঠাৎ সিদ্ধান্ত নেওয়ায় কুমিল্লা বেঁকে বসে!

বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্যদের সঙ্গে তর্ক-বিতর্কে জড়ায় কুমিল্লার ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্মকর্তারা। সেখানে ছিলেন একাধিক বিসিবির কর্মকর্তাও। রংপুর খেলতে রাজী হয়ে মাঠে নেমে ফিল্ডিং অনুশীলন করলেও কুমিল্লার খেলোয়াড়রা ছিলেন ডাগ আউট ও ড্রেসিং রুমে। তাদের খেলার কোনো ইচ্ছে ছিল না তা শারীরিক ভাষাতেও বোঝা যাচ্ছিল।

শেষ পর্যন্ত রাত ১০টা ১০ মিনিটে বিসিবির গ্রাউন্স কমিটির ম্যানেজার সৈয়দ আব্দুল বাতেন ঘোষণা দেন, আজকের ম্যাচ ‘স্থগিত’।

দীর্ঘ নাটক, রোমাঞ্চ, উত্তেজনা ছড়ানোর পর সিদ্ধান্ত হলো বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফাইং ম্যাচ সোমবার একই জায়গা থেকে শুরু হবে। অর্থ্যাৎ টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে রংপুর করেছিল ৭ ওভারে ৫৫ রান। সেখান থেকেই আবার শুরু হবে ম্যাচ। দর্শকদের জন্যও সুখবর। আজকের টিকেটেই আগামীকাল ম্যাচ দেখতে পারবেন তারা।