কাতার প্রবাসী নুর মোহাম্মদের সাফল্যের গল্প

nur-mohammadকর্মক্ষেত্রে ১৫ বছরের উৎকর্ষতার নিদর্শন হিসেবে স্বর্ণপদক ও প্রশংসাপত্র পেলেন বাংলাদেশ লেখক-সংবাদিক অ্যাসোসিয়েশান কাতারের সাধারণ সম্পাদক ও কাতার প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা নুর মোহাম্মদ। সস্পতি কাতারের রাজধানী দোহায় চার তারকা হলিডে ইন হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কোম্পানির সিইও, হিউম্যান রিসোর্সেস ডিরেক্টর, সিনিয়র মার্কেটিং ম্যানেজার ও প্রোডাক্ট প্ল্যানিং ম্যানেজারের হাত থেকে এই সন্মাননা গ্রহণ করেন ব্লগার-কলামিস্ট নুর মোহাম্মদ (নুর)।

তিনি দীর্ঘদিন ধরে কাতারের শীর্ষস্থানীয় অটোমোবাইল কোম্পানী এবং টয়োটা ও লেক্সাস গাড়ির একমাত্র পরিবেশক “আব্দুল্লাহ আব্দুলগানি এন্ড ব্রাদার্সে” প্রোডাক্ট প্ল্যানিং ডিপার্টমেন্টে কর্মরত আছেন। চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের পাঁচ খাইন গ্রামের এই কৃতিসন্তান দীর্ঘদিন ধরে কাতারের রাজনৈতিক, সামাজিক, পেশাধারী বিভিন্ন সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত আছেন।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই তিনি ছিলেন চট্টগ্রাম সমিতি কাতারের একজন স্বপ্নদ্রষ্টা ও পথিকৃৎ। নিজস্ব ব্লগে লেখালেখির পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রায়ই কলাম লিখেন। এছাড়াও তিনি কাতারের জাতীয় ইংরেজি দৈনিক গালফ টাইম্‌স, দি পেনিনসুলা ও কাতার ট্রিবিউন পত্রিকার একজন নিয়মিত কান্ট্রিবিউটর।
গ্লোবাল সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্টে বিষয়ে এমবিএ পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি একাধারে একজন মাইক্রোসফট সার্টিফাইড ইঞ্জিনিয়ার, সিসকো সার্টিফাইড নেটওয়ার্ক অ্যাসোসিয়েট। তিনি কর্মজীবনে কেরিজ, ওরাকল এবং স্যাপের মত তিনটি এন্টারপ্রাইস রিসোর্স প্ল্যানিং সিস্টেমে কাজ করার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেন।

প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি জানান, “এই প্রাপ্তিতে আমি খুব উদ্দীপিত। পিছিয়ে থাকা সাধারণ মানুষ বিশেষ করে প্রবাসীদের জন্য আরও ভাল কিছু করতে চাই। এসব মানুষগুলোর ভালবাসা অকৃত্রিম ও সহজাত। তাঁদের উত্কর্ষসাধনে কিছু করতে পারলে নিজেকে ধন্য মনে হয়।

“প্রবাসীরা সোনার ছেলে” কিংবা প্রবাসীরা একেকজন “বাংলাদেশের রাজদূত”- এসব যেন কথার বুলিতে উদ্ধৃত না থেকে তিনি সরকারকে প্রবাসীদের উন্নতিসাধনে আরও সদয় ও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। প্রসঙ্গত, বর্তমানে তিনি উন্মুক্ত পদ্ধতিতে “লন্ডন স্কুল অব জার্নালিজম” থেকে সাংবাদিকতা বিষয়ে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন করছেন।